বাংলায় আট দফা নির্বাচন বাতিলের দাবিতে জনস্বার্থ মামলা সুপ্রিম কোর্টে

বাংলায় আট দফায় বিধানসভা নির্বাচনের ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। কিন্তু বাংলাতেই কেন আট দফায় নির্বাচন করানো হবে?‌ এই প্রশ্ন তুলে সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করলেন এক আইনজীবী।

বাংলায় আট দফা নির্বাচনের বাতিলের দাবি তুলে সোমবার সুপ্রিম কোর্টে মামলাটি করেন আইনজীবী মনোহর লাল শর্মা। সুপ্রিম কোর্টে এই মামলাটি গৃহীত হয় মঙ্গলবার। পাশাপাশি এই মামলার মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনকে ওই আইনজীবীর আবেদন— যেভাবে বিজেপি ভোট চাইতে ধর্মীয় স্লোগান ‘‌জয় শ্রী রাম’–কে ব্যবহার করছে, সেদিকে নজর দেওয়া হোক।

আইনজীবী মনোহর লাল শর্মার সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা জনস্বার্থ মামলায় প্রশ্ন করা হয়েছে, যেখানে তামিলনাডু, কেরল এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পুদুচেরিতে এক দফা এবং অসমে তিন দফায় ভোট করানো হচ্ছে সেখানে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে আট দফা ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছে নির্বাচন কমিশন?‌ যেখানে অন্য রাজ্যে যেখানে এক দফায় নির্বাচন হচ্ছে, সেখানে আটদফায় কেন ভোট করানো হচ্ছে বাংলায়? এখানে পরিষ্কারভাবে ভারতীয় সংবিধানের ১৪ নং ধারার (সাম্যের অধিকার) লঙ্ঘন করা হচ্ছে।’‌

পাশাপাশি ভারতীয় সংবিধানের জনপ্রতিনিধি আইনের ১২৩(‌৩)‌ এবং ১২৫ নম্বর ধারা উল্লেখ করে আইনজীবীর বক্তব্য, কোনও প্রার্থী বা নির্বাচনের সঙ্গে যুক্ত কোনও ব্যক্তিকে ধর্ম, বর্ণ, জাতি, সম্প্রদায় বা ভাষার ভিত্তিতে কোনও ঘৃণার মনোভাব প্রচার করার অনুমতি দেয় না। তাঁর মতে, এবার আদালত ঠিক করবে যে ভোটপ্রচারে ‘‌জয় শ্রী রাম’‌ স্লোগান দেওয়াকে নির্বাচনী অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হবে কিনা।

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে ৮ দফায় ভোটগ্রহণ শুরু হচ্ছে ২৭ মার্চ। শেষ অর্থাৎ অষ্টম দফার ভোট নেওয়া হবে ২৯ এপ্রিল। অর্থাৎ, একমাসেরও বেশি সময় ধরে চলবে ভোট–উৎসব। ভোটগণনা হবে ২ মে।

আরও পড়ুন- ভয়াবহ যোগীরাজ্য: প্রেমের শাস্তি দিতে নাবালিকা মেয়ের মুন্ডু কাটল বাবা

Advt