রাজ্যে ফেরাবেন বিধান পরিষদ, প্রতিশ্রুতি মমতার

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনের (Assembly Election) জন্য ২৯১ আসনে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পাশাপাশি বিধানসভা ফিরিয়ে আনার প্রতিশ্রুতি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bandopadhyay)। শুক্রবার, সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, ২০২১-এ জয়ের পরে বিধান পরিষদ ফিরিয়ে আনবেন। পূর্ণেন্দু বসু (Purnendu Basu), অমিত মিত্র (Amit Mitra), মণীশ গুপ্তর (Manish Gupta) মতো বর্ষীয়ান নেতারা যাঁরা সরাসরি বিধানসভা নির্বাচনে লড়াই থাকছেন না, তাঁরা বিধান পরিষদের স্থান পাবেন।

পশ্চিমবঙ্গে বিধান পরিষদ (Legislative Council) ছিল যুক্তফ্রন্টের আমলে 1969 সাল পর্যন্ত। এতদিন সেই বিধান পরিষদের অস্তিত্ব কার্যত ছিল না। ৫২ বছর পরে আবার বিধান পরিষদ ফিরিয়ে আনার কথা বললেন মমতা। ২০১১-তে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পরেই বিধান পরিষদ ফিরিয়ে আনার কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী কিন্তু যারা পরিস্থিতির কারণে সেটা কার্যকর করা সম্ভব হয়নি।

রাজ্যসভা ধাঁচে বিধানসভার উচ্চ কক্ষ হিসেবে বিধান পরিষদ থাকে। বিধায়কদের দ্বারা নির্বাচিত হন বিধান পরিষদের সদস্যরা। বর্ষীয়ান নেতাদের পাশাপাশি সেখানে গুণীজনরা থাকবেন। সরকার পরিচালনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন রকম পরামর্শ দেবেন তাঁরা।

দেশের মধ্যে তেলেঙ্গানা-সহ হাত গোনা কয়েকটি রাজ্যে রয়েছে বিধান পরিষদ। এরাজ্যে দীর্ঘদিন এই বিধান পরিষদের কোন অস্তিত্ব ছিল না তাকে ফিরিয়ে আনা সিদ্ধান্ত অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। সুষ্ঠুভাবে সরকার পরিচালনা করার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রচেষ্টা বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

Advt