‘বিজেপির মত শয়তান দল সারা পৃথিবীতে নেই’, দাসপুরের সভায় তোপ মমতার

দীর্ঘ ১০ বছরের শাসনকালে রাজ্যে উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরার পাশাপাশি বিজেপির(BJP) বিরুদ্ধে ঝাঁঝালো আক্রমণও শানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(Mamata Banerjee)। শুক্রবার দাসপুরের সভা মঞ্চ থেকে মমতা বললেন, ‘বিজেপির মত শয়তান দল সারা পৃথিবীতে নেই’।

২৭ মার্চ শনিবার থেকে রাজ্যে শুরু হয়ে যাচ্ছে প্রথম দফার নির্বাচন। দ্বিতীয় দফার নির্বাচন ১ এপ্রিল। সেই নির্বাচনকে নজরে রেখে শুক্রবার মেদিনীপুরের দাসপুর বিধানসভা কেন্দ্রে জনসভা করেন তৃণমূল (TMC) নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগে তিনি বলেন, ‘মহিলাদের সম্মান করে না বিজেপি। মা দুর্গাকেও অপমান করে।’ পাশাপাশি কড়া সুরে তিনি বলেন, ‘বিজেপির মত শয়তান দল গোটা পৃথিবীতে নেই।’ এছাড়াও বিজেপিকে ‘কৃষক বিরোধী’ অভিযোগ করে দিল্লিতে কৃষক আন্দোলনের প্রসঙ্গ তুলে আনেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, ‘কৃষকরা যাতে রাস্তায় বেরোতে না পারেন পেরেক পুঁতে দেওয়া হয়েছে। যীশু খ্রীস্টকেও ক্রুশ বিদ্ধ করে মারা হয়।’ একই সঙ্গে নাম না করে সংযুক্ত মোর্চার শরিক আব্বাস সিদ্দিকীকেও তোপ দাগেন মমতা। তিনি বলেন, মুসলিম ভোট ভাগ করার জন্য একটি সাম্প্রদায়িক লোকের সঙ্গে জোট করেছে সিপিএম।

এছাড়াও রাজ্যে বাইরে থেকে গুন্ডা এনে ভোট করানোর চেষ্টা চলছে বলে বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বলেন, ‘গতকাল ৩০ জন উত্তরপ্রদেশের গুন্ডা টাকাসহ ধরা পড়েছে কাঁথিতে। আমি অনেকদিন ধরেই বলছিলাম এবার মিলে গেল তো।’ এর পাশাপাশি জনসাধারণকে সতর্ক করে মমতা বলেন, ‘উত্তর প্রদেশ বিহার থেকে পুলিশ হানা হচ্ছে। আপনারা সতর্ক থাকবেন নিজের এলাকা ছেড়ে যাবেন না।’ পাশাপাশি তিনি বলেন, ইভিএম খারাপ হয়ে গেলে ছেড়ে যাবেন না। ইভিএম ভাল করে পরীক্ষা করতে হবে, না হলে ভোট ভরে আনবে। ভিভিপ্যাট ভাল করে পরীক্ষা করে দেখতে হবে। ভোট গণনার দিন বিরিয়ানি দিলেও খাবেন না ওঠে বিষ মেশানো থাকতে পারে বলেও সতর্ক করেন মমতা।

আরও পড়ুন:রাত পোহালেই রাজ্যে প্রথম দফার ভোট, দেখে নিন কোন কেন্দ্রে কাদের মধ্যেই লড়াই

এছাড়াও রাজ্যে উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আমরা যা প্রতিশ্রুতি দিয়েছি সব করেছি। উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গকে জুড়তে দাসপুর থেকে উত্তরবঙ্গ পর্যন্ত নতুন রাস্তা তৈরি হচ্ছে। পাশাপাশি দুয়ারে সরকারের প্রশংসা করে তিনি বলেন, এবার ক্ষমতায় এসে বিনা পয়সায় চাল দুয়ারে দুয়ারে দেব। স্বাস্থ্য সাথী কার্ডে মেয়েরা তার বাবা-মায়ের চিকিৎসা করাতে পারবে। পাশাপাশি দাসপুর, ঘাটাল, চন্দ্রকোনা মাস্টারপ্ল্যান কেন্দ্র করতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন তিনি। দুয়ারে সরকারের প্রশংসা করে তিনি আরো জানান, এই প্রকল্পের মাধ্যমে অল্প দিনে ৪০ লক্ষ জাতি শংসাপত্র দিয়েছি আমরা।

Advt