‘কমিশনকে দিয়ে অফিসার বদল করানো হচ্ছে’, খানাকুল থেকে বিজেপিকে আক্রমণ মমতার

‘নির্বাচন কমিশনকে দিয়ে রোজ অফিসার বদল করা হচ্ছে।অফিসার বদল করলেই কী সব হয়ে যাবে?’ রবিবার ভোটের প্রচারে বেরিয়ে কমিশনের ৪ পুলিশ অফিসারের রদবদল নিয়ে বিজেপিকে সরাসরি করে আক্রমণ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। এদিন জনসভা থেকে নাম না করে প্রধানমন্ত্রীকে বলেন,” আগে দিল্লি সামলান, আমার রাজ্য সরকারকে নির্দেশিকা দেওয়ার অধিকার আপনার নেই।”
তৃতীয় দফার ভোটের আগেই আজ শেষ নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে প্রথমে হুগলীর খানাকুলে জনসভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জনসভা থেকে তিনি বলেন, “সকাল সকাল ভোট দিন। ইভিএম খারাপ করে রাখাটা বিজেপির চালাকি। সেজন্য ভোট না দেওয়া হবেন না। অন্য বুথে গিয়ে ভোট দেবেন। যতক্ষণ না বাক্স সিল হচ্ছে,কেউ জায়গা ছাড়বেন না।বাঙ্গলাক বহিরাগতদের থেকে বাঁচাতে ভোটটা জোড়াফুলেই দিন” এদিন বুথ এজেন্টদের উদ্দেশে তিনি বলেন,”সাহস না থাকলে তৃণমূলের এজেন্ট হবেন না। কিন্তু বিজেপি ভয় দেখিয়েছে বলে ন্যাকা কান্না কাঁদবেন না। জোড়াফুলে একবার ভোট পড়ে গেলে ওঁরা কিচ্ছু করতে পারবে না।”

আজ তৃতীয় দফার আগে হাওড়া, হুগলি ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় পরপর পাঁচটি সভা রয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। হুগলির খানাকুল দিয়ে তৃণমূল নেত্রীর এদিনের প্রচার শুরু করেছেন। এরপর হুগলিরই পুরশুড়া, হাওড়ার আমতা, দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর পশ্চিম ও সোনারপুর দক্ষিণে নির্বাচনী সভা করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।প্রচারে ঝড় তুলতে আজ একাই তিন জেলা চষে বেড়াবেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

Advt