৩ দফা ভোটে ৩০টির বেশি আসন পাবে না, ভুয়ো দাবি করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বিজেপি: মমতা

বিজেপি প্রার্থী পায়নি তাই লকেটকে দাঁড় করিয়েছে, কটাক্ষ মমতার

প্রথম তিন দফা নির্বাচনে বিজেপি (Bjp) যত আসন পাওয়ার দাবিই করুক না কেন তার পুরোটাই ভুয়ো। প্রথম তিন দফার ভোটে ২৫ থেকে ৩০টি আসনের বেশি পাবে না পদ্ম শিবির- কোচবিহারে সভা শেষে যাদবপুরের প্রচার সভায় দাবি তৃণমূল (Tmc) সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Bandopadhyay)।

রাজ্যে প্রচারে এসে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) দাবি করেন, প্রথম তিন দফায় ৬৩ থেকে ৬৮টি আসনে জয়ী হবে বিজেপি৷ এর উত্তরে যাদবপুরের সভায় মমতা বলেন, “উনি বলেছেন প্রথম তিন দফায় ৬৮ থেকে ৭০টি আসন পেতে পারেন৷ এসব বিভ্রান্ত করার জন্য বলছেন৷ প্রথম তিন দফায় খুব বেশি হলে ওরা ২৫ থেকে ৩০টি আসন পাবে। কারণ, যেখানে ভোট হয়েছে তার কয়েকটি জায়গায় ওদের কিছুটা শক্তি রয়েছে”৷

প্রথম দুই দফায় জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে ভোট হয়েছে৷ এ ছাড়াও পূর্ব মেদিনীপুরেও ভোটগ্রহণ হয়৷ তৃণমূল নেতৃত্বের অবশ্য দাবি, লোকসভা নির্বাচনের সঙ্গে বিধানসভার ফল মিলবে না৷

এদিন সেকথার রেশ টেনে মমতা বলেন, ছত্তিশগড়েও (Chattisgar) ওরা 65টা আসন পাবে বলেছিল, পেয়েছিল পনেরোটা। দিল্লি (Delhi) নির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবি হয়েছিল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতে, পরবর্তী দফাগুলিতে ভোটারদের বিভ্রান্ত করতেই বিজেপি অধিকাংশ আসন পাবে বলে দাবি করছেন অমিত শাহ৷ তৃণমূলনেত্রী বলেন, এর আগে ছত্তিশগড়, দিল্লির বিধানসভা নির্বাচনেও একই ভাবে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছিলেন বিজেপি নেতারা৷ কিন্তু ওই সব রাজ্যে বিজেপি-র খারাপ ফল করে৷

যাদবপুরের সভা থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, ভোট লুঠ করার জন্য কলকাতাতেও ভিন রাজ্যের দুষ্কৃতীদের জড়ো করছে গেরুয়া শিবির ৷

বহিরাগতদের তাড়িয়ে বাংলার মানুষ যোগ্য জবাব দেবে বলে যাদবপুরের সবাইকে জানান মমতা।

আরও পড়ুন- মগরাহাট পশ্চিমের তৃণমূল প্রার্থী আক্রান্ত, আঘাত গুরুতর, অভিযুক্ত বিজেপি

Advt