ফল ঘোষণা হতেই হিংসায় উত্তপ্ত ত্রিপুরা, দলীয় সরকারের বিরুদ্ধেই সরব বিজেপি

ত্রিপুরা স্বশাসিত জেলা পরিষদের নির্বাচনের ফল ঘোষণা হতেই হিংসা ছড়ালো ত্রিপুরায় । গতকালই এই নির্বাচনের ফল ঘোষণা হয়েছে । জানা গিয়েছে, ফল ঘোষণা হতেই বিজেপি সমর্থকদের ওপর এবং তাদের দলীয় অফিস গুলিতে দেদার ভাঙচুর চালানো হচ্ছে । পরিস্থিতি এতটাই সঙ্গীন যে ওই এলাকাগুলিতে ৪৮ ঘণ্টার জন্য ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।
বিধানসভায় বিজেপির মুখ্য সচেতক কল্যাণী রায় অভিযোগ করে ছেন, তিপ্রা মথার সঙ্গে সিপিএম-এর গণমুক্তি পরিষদের সমর্থকেরা এই সব হামলার ঘটনায় জড়িত রয়েছে।
একদিকে করোনার দ্বিতীয় ঢেউরে যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে তাতে নাজেহাল ত্রিপুরা প্রশাসন । এই পরিস্থিতিতে বিজয় মিছিল বাতিল করেছেন তিপ্রা মথার চেয়ারম্যান প্রদ্যোত কিশোর। বিজেপির অভিযোগ খারিজ করে তিনি ঘোষণা করেছেন, আমাদের দলের কোনও কর্মী হামলায় জড়িত নন। তিপ্রা মথার কেউ যদি কোনও রকম আক্রমণ বা চাঁদা তোলার ঘটনায় জড়ান, তা হলে তাঁকে দল থেকে বার করে দেওয়া হবে।
রাজ্য কংগ্রেসের সহসভাপতি তাপস দে-র বক্তব্য , দলের কর্মীদের মনোবল ধরে রাখতেই বিজেপি সরকারি কর্মী ও আধিকারিকদের দিকে আঙুল তুলছে।

বিজেপির নেতৃত্ব যে ভাবে পুলিশ প্রধানের দ্বারস্থ হয়েছেন, সেটা নিজেদের দলের সরকারের উপরেই তাঁদের অনাস্থার প্রকাশ।

গণমুক্তি পরিষদের সভাপতি জিতেন্দ্র চৌধুরী বলেছেন, “বিজেপি তাদের জনবিচ্ছিন্ন নীতির কারণে হেরে গিয়ে এখন সবেতেই সিপিএমের এবং গণমুক্তি পরিষদের ভূত দেখতে পাচ্ছে। বিজেপি এখন বলছে বিরোধীদের হয়ে কাজ করছেন প্রশাসনের কর্মীরা।

Advt