FAKE: শীতলকুচি নিয়ে বিজেপি নেতাদের মিথ্যাচার ফাঁস, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড়

ধানবাদে লেঙ্গুরের হামলায় জখম সিআইএসফ (CISF) জওয়ানের ছবি শীতলকুচি (Shitalkuchi) বলে চালাতে গিয়ে মুখ পুড়ল তিন বিজেপি (BJP) নেতার। ফের এক বড়সড় মিথ্যাচার (Fake) ফাঁস হলো বিজেপি নেতাদের। বলা ভালো দলবদলু বিজেপি নেতাদের। শীতলকুচির মতো স্পর্শকাতর ইস্যুতে FAKE ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোষ্ট করে সমালোচনার মুখে অর্জুন সিংরা (Arjun Singh)। সোশ্যাল মিডিয়ায় FAKE ছবি পোস্ট করার বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছে তৃণমূল (TMC)।

চতুর্থ দফার ভোটে কোচবিহারের শীতলকুচিতে কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মৃত্যু হয় চার তরতাজা যুবকের। এরা পেশায় মূলত গরিব খেটে খাওয়া দিনমজুর। এই ঘটনায় এখন উত্তাল রাজ্য রাজনীতি।

 

বিজেপির তরফে শুরু থেকেই দাবি করা হয়েছে, শীতলকুচির ঘটনায় উগ্র গ্রামবাসীদের হামলায় জখম হয়ে

আত্মরক্ষার তাগিদেই গুলি চালিয়েছে জওয়ানরা। কিন্তু প্রায় তিনদিন হতে চললেও তেমন প্রমাণ কেউ সামনে আনতে পারেনি। বুথের বাইরে ওয়েব কাস্টিং ক্যামেরা সেই সময় নাকি বন্ধ ছিল। ফলে কোনও ভিডিও ফুটেজও প্রকাশ্যে আসেনি। তৃণমূলের তরফে গুলি চালিয়ে চারজনকে মেরে ফেলার বিষয়টিকে পরিকল্পিত “খুন” বলে দাবি করা হচ্ছে।

 

অন্যদিকে, এই ঘটনার ফোকাস ঘুরিয়ে দিতে সিআইএসএফের এক জওয়ানের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দলবদলু তিন বিজেপি নেতা। একই সঙ্গে তাঁরা দাবি করেন, গ্রামবাসীদের আক্রমণে জখম হয়েই গুলি চালাতে বাধ্য হয়েছে সিআইএসএফ। জওয়ানের যে ছবি পোস্ট করা হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে গালে ও মুখে মারাত্মক জখম রয়েছে তাঁর। রক্তক্ষরণ হচ্ছে।

কিন্তু বেলা গড়াতেই প্রকৃত ‘সত্য’ সামনে আসে। জানা যায়, অর্জুন সিংরা যে ছবি পোস্ট করেছেন, সেই ছবিটি সিআইএসএফ জওয়ানের হলেও, তাঁর সঙ্গে শীতলকুচির ঘটনার দূর দূর পর্যন্ত কোনও সম্পর্কই নেই। বিষয়টি যাচাই হওয়ার পর নিন্দার ঝড় বইতে শুরু করেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রকৃত ঘটনা তাহলে কী?

সিআইএসএফের জখম যে জওয়ানের ছবি দলবদলু বিজেপি নেতারা পোস্ট করেছেন, তিনি এএসআই এসপি শর্মা। সিআইএসএফের এই জওয়ান ধানবাদের বাগমারার বিকে-২ কোলিয়ারি এলাকায় বর্তমানে কর্মরত। সিআইএসএফ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ৯ এপ্রিল কর্মরত অবস্থায় লেঙ্গুরের আক্রমণে মারাত্মক জখম হয়েছিলেন তিনি। বর্তমানে ওই সিআইএসএফ জওয়ান ধানবাদের সেন্ট্রাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেই ছবিকে শীতলকুচি বলে চালাতে গিয়ে কার্যত মুখ পুড়ল অর্জুন সিং-সহ আরও দুই বিজেপি নেতার। এমন মিথ্যাচার ফাঁস হয়ে যাওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়াতে নিন্দার ঝড়। এ ব্যাপারে অবশ্য মুখে কুলুপ এঁটেছে গেরুয়া শিবির