দিদি ও দিদি’ অপমানের কড়া জবাব, ‘দিদি জিও দিদি’: মমতাকে অভিনন্দন অখিলেশ-তেজস্বীর

বেশিরভাগ বুথ ফেরত সমীক্ষার দাবি ছিল বঙ্গে এবার তৃণমূল ক্ষমতায় এলেও ২০০-র গণ্ডি পার করতে পারবে না। তবে সকলকে চমকে দিয়ে বঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে এখনো পর্যন্ত ২০৬ টি আসনে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল(TMC)। স্বাভাবিকভাবেই রাজনৈতিক মহল নিশ্চিত বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা সহ আরো একবার বাংলায় ক্ষমতায় আসছে তৃণমূল। বিজেপিকে(BJP) চুরমার করে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এহেন নিশ্চিত জয়ের আভাস পেয়ে তাকে শুভেচ্ছা ভরিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্বরা। রবিবার মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে একের পর এক টুইট করেছেন বিহারের আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব(Tejaswi Yadav), দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী তথা আপ নেতা অরবিন্দ কেজরিওয়াল, উত্তরপ্রদেশের সপা প্রধান অখিলেশ যাদব(Akhilesh Yadav), টুইট করেছেন মহারাষ্ট্রের এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারের মত নেতৃত্বরা।

রবিবার বাংলার নির্বাচনী ফলাফলের আভাস পাওয়ার পর টুইট করে উত্তরপ্রদেশের বিরোধী নেতা সপা প্রধান অখিলেশ যাদব লেখেন, ”বাংলায় বিজেপির ঘৃণার রাজনীতিকে হারাতে সক্ষম পশ্চিমবঙ্গের সাধারণ মানুষ ও প্রিয় মমতা দিদিকে অভিনন্দন। অভিনন্দন তৃণমূলের সমস্ত নেতৃত্বকে। একজন মহিলাকে ‘দিদি ও দিদি’ বলে অপমানজনক কটাক্ষের জবাব দিয়েছে বাংলার মানুষ। ‘দিদি জিও দিদি’।” অখিলেশের পাশাপাশি আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব লেখেন, “পশ্চিমবাংলার মমতাময়ী জনতাকে কোটি কোটি শুভেচ্ছা ও হৃদয় থেকে সাধুবাদ জানাচ্ছি। আর যখন গোটা দেশ কঠিন পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করছে পশ্চিমবাংলা আরো একবার ফের তাদের মমতা ও ভরসা দিদির ওপর রেখেছেন। এটা জনতার স্নেহ ও বিশ্বাসের জয়। এই জয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দৃঢ় ও কুশল নেতৃত্বে জয়।

পাশাপাশি টুইট করে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল লেখেন, “এই অসাধারণ জয়ের জন্য অনেক শুভেচ্ছা মমতা দিদি। কী দূর্দান্ত লড়াই! অনেক শুভেচ্ছা বাংলার জনগণকে।” এছাড়াও মমতাকে শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি মহারাষ্ট্রের জোট সরকারের অন্যতম নেতৃত্ব এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইটে তিনি লেখেন, “এমন বিস্ময়কর জয়ের জন্য আপনাকে অনেক শুভেচ্ছা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আসুন আমরা জনকল্যাণে এবং সম্মিলিতভাবে মহামারী মোকাবিলার উদ্দেশ্যে আমাদের কাজ চালিয়ে যাই।