এবার নজর ২২শে, ‘ইমেজ’ সামলাতে নাড্ডার বাড়িতে হাইভোল্টেজ বৈঠক বিজেপির

নরেন্দ্র মোদিকে(Narendra Modi) সামনে রেখে যে সুসজ্জিত ভাবমূর্তি বিজেপি তৈরি করেছিল করোনা তার দফারফা করে দিয়েছে। পাশাপাশি বঙ্গে বিধানসভা নির্বাচনে হার আরো খানিক ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছে গেরুয়া শিবিরকে। এহেন অবস্থার মাঝেই ২০২২ সালে নির্বাচন রয়েছে উত্তরপ্রদেশ সহ দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যে। আর সেই নির্বাচনকে পাখির চোখ করে করোনা কালেই এবার মাঠে নেমে পড়ল গেরুয়া শিবির। কখনো আরএসএসের(RSS) শীর্ষ নেতৃত্ব বৈঠকে বসছেন, তো কখনো বিজেপি ও আরএসএস দুইয়ে মিলে সাজাচ্ছে রণকৌশল। সেই ধারা অব্যাহত রেখে এবার নিজের বাড়িতেই হাইভোল্টেজ বৈঠক করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা(JP Nadda)। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গোটা দেশের শীর্ষস্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।

বিজেপি সূত্রে জানা যাচ্ছে, বর্তমানে গেরুয়া শিবিরের মূল লক্ষ্য একটাই। তা হলো কার্যত নষ্ট হয়ে যাওয়া ভাবমূর্তিকে আবার প্রতিষ্ঠা করা। শনিবার নাড্ডার বাড়িতে চলা বৈঠকে করোনাকালে মানুষের সাহায্যার্থে বিজেপি কি কি করতে চলেছে এবং কি কি করা হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। বৈঠকের পর সংগঠনের মহাসচিব বিএল সন্তোষ কে সঙ্গে নিয়ে নাড্ডা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। জানা যাচ্ছে, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের পাশে বিজেপি ঠিক এমনই বার্তা দিয়ে জনমানুষের নিজেদের ভাবমূর্তি উন্নত করার তোড়জোড় শুরু করা হয়েছে।

নাড্ডার বাড়িতে দীর্ঘক্ষন ধরে চলা এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের বিভিন্ন মোর্চার সভাপতি। বৈঠক শেষে বিজেপির মহাসচিব কৈলাস বিজয়বর্গীয় এক টুইটে লেখেন, “করোনার মত চ্যালেঞ্জের সামনে জনগণের সেবার জন্য বিজেপি সর্বদা সমর্পিত। ‘সেবা হি সংগঠন-২’ মাধ্যমে সেবা দিবসে ৩৪ রাজ্যের ১.৫৩ লক্ষেরও বেশী গ্রাম এবং বস্তিতে বিজেপি তরফে সেবামূলক কাজ করা হয়েছে।” তিনি আরো বলেন, এই কাজের পাশাপাশি ৬৬ হাজার ৭০৬ জন ‘কার্যকর্তা’ প্রয়োজনীয় সামগ্রী মানুষকে বিলি করেছেন।

আরও পড়ুন:কোভিড বিধি মেনে পানিহাটি স্পোর্টিং সেন্টারে রক্তদান শিবির

দু’দিন ধরে চলা এই বৈঠকে রবিবার পুরোপুরি নির্বাচনী রণকৌশলের ওপর নজর দেবেন শীর্ষ বিজেপি নেতৃত্ব। একুশের নির্বাচনে বঙ্গে হারের কারণ খতিয়ে দেখার পাশাপাশি সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামী নির্বাচনের জন্য কোমর বেঁধে প্রস্তুতি শুরু করে দিচ্ছে আর বিজেপি। আগামী ২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, পাঞ্জাবের পাশাপাশি নির্বাচন রয়েছে গোয়া ও মনিপুরে। তবে বর্তমানে বিজেপির ভাবমূর্তি যেভাবে তলানিতে ঠেকেছে তা পুন:প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে নির্বাচনী হার কার্যত নিশ্চিত। সেদিকে নজর দেখে ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি পর্ব শুরু করে দেওয়া হয়েছে শীর্ষ নেতৃত্বের তরফে। পাশাপাশি ভাবমূর্তি তৈরীর কাজে আরএসএস কেউ পুরোদমে কাজে লাগাতে চাইছে গেরুয়া বাহিনী।

Advt