এবারও কোনও পূর্ণমন্ত্রী পেল না বাংলা

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি(BJP) বাংলা থেকে ১৮ টি আসন পেলেও এতদিন মাত্র দুজন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী হিসেবে জায়গা পেয়েছিলেন মোদির মন্ত্রিসভায়(Modi cabinet)। নয়া মন্ত্রিসভা গঠনের পর অবশ্য বাংলা থেকে শিঁকে ছিঁড়েছে মাত্র ৪ জনের। বিগত ৭ বছরে মোদির মন্ত্রিসভায় একজনও পূর্ণমন্ত্রী পেল না বাংলা। বরং অতীতের ২ অভিজ্ঞ প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়, দেবশ্রী চৌধুরীকে এবার বাদ দেওয়া হল মন্ত্রিসভা থেকে।

বুধবার করোনা বিধি মেনে রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ গ্রহণ করেন মোদির মন্ত্রিসভা ৪৩ জন মন্ত্রী। এই তালিকায় ১৫ জন পেয়েছেন পূর্ণমন্ত্রীর পদ। পাশাপাশি ২৮ জন পেয়েছেন প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব ভার। আর সেই ২৮ জনের তালিকাতেই দেখা গেল বাংলার ৪ সাংসদ শান্তনু ঠাকুর, নিশীথ প্রামাণিক, জন বার্লা ও সুভাষ সরকারকে। কিন্তু বাংলা থেকে এত বছরেও কেন একজনও পূর্ণমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন না? এর পিছনে অবশ্য বঞ্চনাই দেখছে রাজনৈতিক মহল। রাজনৈতিক মহলের দাবি, একুশের বিধানসভা নির্বাচনে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়লেও আশানুরূপ ফল করতে পারেনি বিজেপি। এদিকে সামনে কোনও নির্বাচনেই বাংলায়। ফলে আগামী লোকসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আপাতত বঙ্গ বিজেপিকে ছেলে ভোলানো লাড্ডু ধরিয়েই ৪ জনকে প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে বাংলা থেকে।

আরও পড়ুন:রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নিলেন ৪৩ মন্ত্রী, উত্তরপ্রদেশ ভোটে বাড়তি নজর

এদিকে বাংলা একটিও পূর্ণমন্ত্রী না পাওয়ায় রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে কটাক্ষ করে টুইট করতে দেখা গিয়েছে তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষকে। টুইটে রীতিমতো কটাক্ষ করে এদিন তিনি লেখেন, “দিলীপবাবু ওওওওও দিলীপবাবু, বাংলা থেকে এবারও পূর্ণমন্ত্রী করা হল না। এটা কি বঞ্চনা নয়? তৃণমূল বাংলাকে পূর্ণমন্ত্রী দিয়েছে। কংগ্রেসও অতীতে দিয়েছে। এখনও সম্মানে লাগছে না? আপনাদের দিল্লির নেতারা দাদাগিরি করতে আসেন। কিন্তু বাংলাকে সম্মান
দিতে রাজি নন। আপনি প্রতিবাদ করবেন না?”