রাজ্যের নির্বাচন সংক্রান্ত মামলা নিয়ে এখনই হস্তক্ষেপ করবে না হাইকোর্ট

হাইকোর্টে নন্দীগ্রাম-সহ ৫ কেন্দ্রের ভোট নিয়ে মামলা, শুনানির সম্ভাবনা শুক্রবারই
হাই কোর্ট

রাজ্যের তিন কেন্দ্রের নির্বাচন বা উপনির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে এখনই হস্তক্ষেপ করবেনা হাইকোর্ট ৷ এ বিষয়ে শুনানির জন্য আরও ৬ মাস মামলাকারীকে অপেক্ষা করতেও বলা হয়েছে৷ হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দলের ডিভিশন বেঞ্চ সোমবার জানিয়েছে,রাজ্যের নির্বাচন নিয়ে দায়ের করা জনস্বার্থ মামলার শুনানির প্রয়োজনই নেই৷ কারণ, তেমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়নি৷

 

প্রসঙ্গত, সামশেরগঞ্জ এবং জঙ্গিপুর, দুটি বিধানসভা কেন্দ্রের নির্বাচন এবং ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচন ঘোষণার পরই হাইকোর্টে মামলা করে দাবি করা হয়

বাকি শূণ্য আসনেও একইসঙ্গে ভোট ঘোষণা করতে হবে৷ এদিনের শুনানিতে এই সওয়ালের পরই ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দেন, বিধানসভা উপনির্বাচন বা নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয়ে রুজু করা জনস্বার্থ মামলায় এই মুহূর্তে কলকাতা হাইকোর্ট কোনওভাবেই হস্তক্ষেপ করবে না৷ কারণ হিসেবে প্রধান বিচারপতি জানান, এই ধরনের মামলার পরিস্থিতি এখনও তৈরি হয়নি৷ তাই এখন শুনানিরও কোনও প্রয়োজন নেই। হাইকোর্ট এদিন জানিয়েছে, জাতীয় নির্বাচন কমিশন রাজ্যের দুটি বিধানসভা কেন্দ্রে নির্বাচন এবং ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনের দিন ঘোষণা করেছে। সার্বিক পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখেই আদালত মনে করছে, এই মুহূর্তে এ ধরনের জনস্বার্থ মামলা দায়ের করার পরিস্থিতি এখনই নেই৷ নির্বাচন কমিশন সবদিক বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে৷ এই ইস্যুতে মামলা করতে হলে মামলাকারী রমাপ্রসাদ সরকারকে আগামী ৬ মাস অপেক্ষা করতে হবে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দল ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ এদিন এই রায় ঘোষণা করেছে৷

 

এর পাশাপাশি সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়ের রুজু করাভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন নিয়ে করা আর এটি জনস্বার্থ মামলার গ্রহণযোগ্যতা নিয়েই এদিন প্রশ্ন তুলেছে জাতীয় নির্বাচন কমিশন। এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর৷

 

advt 19

Previous articleবুদ্ধর প্রকল্প বাস্তবায়িত মমতার হাত ধরে, ‘মা’র অধিকার নিয়ে বাম-তৃণমূল তরজা
Next articleপ্রাথমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতিকে আদালত অবমাননার মামলায় অব্যাহতি দিল হাইকোর্ট