শাহের বৈঠকে আমন্ত্রিতদের তালিকা ছোট করছে ক্ষমতাসীনরা, “নো-এন্ট্রি” মানবে না বিদ্রোহীরা

বঙ্গ বিজেপির মুষল পর্বের মধ্যেই দু’দিনের রাজ্য সফরে একাধিক কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসছেন প্রাক্তন সর্বভারতীয় সভাপতি তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বিজেপি সূত্রে খবর, আগামী ৪ মে রাতে কলকাতায় পা রাখবেন অমিত শাহ। ওইদিন কোনও কর্মসূচি নেই। এরপর ৫ তারিখ সকালেই উত্তরবঙ্গে সরকারি কর্মসূচি, বিকেলে শিলিগুড়িতে জনসভা। ৬ তারিখ উত্তর ২৪ পরগনায় সরকারি কর্মসূচির পর কলকাতায় দলের রাজ্য নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় সাংগঠনিক বৈঠক করবেন অমিত শাহ। ওইদিন রাতেই তাঁর দিল্লি ফিরে যাওয়ার কথা।

আরও পড়ুন: বিজেপির মুষল পর্বে নয়া অধ্যায়, সুকান্তর মহামিছিল এড়ালেন পুরুলিয়ার হাফ-ডজন বিধায়ক

বিধানসভা ভোটে ডেইলি পাসেঞ্জার ছিলেন অমিত শাহ। কিন্তু দলের ভরাডুবির পর আর বাংলামুখী হননি তিনি। এরই মাঝে রাজ্য চরম গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জর্জরিত গেরুয়া শিবির। সেই অস্বস্তিকর পরিবেশের মধ্যেই ফের রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ।

তবে নিজেদের ব্যর্থতা অমিত শাহের সামনে কোনওভাবেই তুলে ধরতে নারাজ রাজ্য বিজেপির ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী। তাই কলকাতায় অমিত শাহর বৈঠকে আমন্ত্রিতদের তালিকা সংক্ষিপ্ত করা হচ্ছে বলে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে। বিদ্রোহী গোষ্ঠীর নেতারা যাতে শাহের সামনে ক্ষমতাসীন শিবিরের অপদর্থতা, স্বজনপোষণ, ব্যর্থতার নিদর্শন ও নিজেদের ক্ষোভের কথা সরাসরি যাতে তুলে ধরতে না পারেন তার জন্য বাছাই করা কিছু নেতাকে অমিত শাহের বৈঠকে যোগ দেওয়ার অনুমোদন দেওয়া হতে পারে।

যদিও বিদ্রোহী ও বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর নেতারাও শাহী সাক্ষাতে এই “নো-এন্ট্রি” মানবে না বলে ভিতর ভিতর তৈরি হচ্ছে। বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর নেতাদের একটি বড় অংশ দিল্লির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছে। এমনকি, এ রাজ্য থেকে কেন্দ্রীয় কমিটিতে থাকা নেতারা ইন্ধন দিচ্ছে বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীকে।
ইতিমধ্যেই বঙ্গ বিজেপির অন্তর্কলহ ও দল পরিচালনার ক্ষেত্রে বর্তমান রাজ্য নেতৃত্বের চরম ব্যর্থতার নিদর্শনের বিস্তারিত রিপোর্ট অমিত শাহর কাছে গিয়েছে। সেক্ষেত্রে অমিত শাহ নিজে বিক্ষুব্ধ ও বিদ্রোহীদের ডেকে কথা বলতে পারেন বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

অন্যদিকে, বাংলায় বিজেপির বেহাল দশার কারণ জানতে অমিত শাহের সফরের আগেই বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথা সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষের সঙ্গে দিল্লিতে দলের সদর দফতরে একপ্রস্থ বৈঠক করেছেন। আজ, বৃহস্পতিবার নাড্ডার সঙ্গে ফের একদফা বৈঠক করতে পারেন দিলীপ ঘোষ।

Previous articleবিজেপির মুষল পর্বে নয়া অধ্যায়, সুকান্তর মহামিছিল এড়ালেন পুরুলিয়ার হাফ-ডজন বিধায়ক