দিল্লি সফরের আগে জ্বালানির পর বিমান ভাড়া নিয়ে কেন্দ্রকে তুলোধনা করে ট্যুইট মুখ্যমন্ত্রীর

পেট্রোপণ্যে দাম বৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রকে তুলোধনা করার পর বিমান ভাড়া নিয়ে সরব মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার রাতে ট্যুইটে তিনি মোদি সরকারকে একহাত নিয়ে পরপর তিনটি ট্যুইট করেন তিনি। সেখানে আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, রাজ্যগুলির দিকে আঙুল তোলার আগে কেন্দ্র বিমান ভাড়া কমানোর ব্যবস্থা নিক। এখনই কম করুক জ্বালানির উপর শুল্ক, অতিরিক্ত শুল্ক ও আবগারি শুল্ক।

আরও পড়ুন:এগিয়েছে গরমে ছুটি, সরকারি স্কুলে পরীক্ষা স্থগিত করল পর্ষদ-সংসদ


এদিন ট্যুইটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, কেন্দ্র মাথায় রাখুক, পশ্চিমবঙ্গ সরকার বাগডোগরা ও অন্ডাল  বিমানবন্দরে বিমান জ্বালানির শুল্কে ছাড় দিয়েছে। কলকাতা বিমানবন্দরে,উড়ান প্রকল্পের আওতায় থাকা বিমানগুলিতে মাত্র ১ শতাংশ শুল্ক নেওয়া হয়। ছোট বিমানগুলিতে ৫ শতাংশ। এবং ২০১২-১৩ সাল থেকে চালু হওয়া বিমান সংস্থাগুলি থেকে ১২.৫% হারে শুল্ক নেওয়া হয়। বিমান ভাড়া কমানোর জন্য আমরা সব ধরণের শুল্ক কমিয়েছি। কেন্দ্র শুল্ক না কমিয়ে শুধু বিনামূল্যে উপদেশ দিয়ে যাচ্ছে।

বুধবার কোভিড নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কাউকেই বলার কোনও সুযোগ দেননি। অথচ কোভিড পরিস্থিতির সঙ্গে সঙ্গে জ্বালানির দাম নিয়েও সুর চড়ান মোদি। এরপরই এর কড়া জবাব দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকের পরেই পেট্রোল-ডিজেল-গ্যাস নিয়ে কেন্দ্রের মিথ্যাচারের প্রতিবাদ করেন মুখ্যমন্ত্রী।


আজ, শুক্রবার দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। বিশেষ বৈঠকে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে তাঁর। তার ঠিক আগে বৃহস্পতিবার ট্যুইট করে বিমান ভাড়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে তোপ দাগলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Previous articleBreakfast Sports: ব্রেকফাস্ট স্পোর্টস