রাজপথ আটকে ভোগান্তি বাড়িয়ে, হারের বর্ষপূর্তি পালন বিজেপির

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ব্যর্থতা-সহ একগুচ্ছ অভিযোগ এনে সোমবার তিলোত্তমার রাজপথে মিছিল করল বিজেপি। সেই মিছিলে পা মেলালেন দিলীপ ঘোষ , সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে জর্জরিত সাড়ে বত্রিশ ভাজা বিজেপি এই মিছিল করে কী প্রমাণ করতে চাইল সেটাই হচ্ছে হাজার টাকার প্রশ্ন। নানা মুনির নানা মতে এখন শতধা বিজেপি।

আগে ছিল আদি-তৎকাল-পরিযায়ী। এখন আবার যোগ হয়েছে ‘সুকান্ত বিজেপি’, ‘দিলীপ বিজেপি’। দলীয় নেতাদের নিজেদের প্রতি কোনও ভরসা নেই । দলের শীর্ষ নেতৃত্বের প্রতি তো নেই -ই। নিজেদের অন্তর্দ্বন্দ্বের ফলেই বাংলায় ভরাডুবি হয়েছে গেরুয়া শিবিরের।

একের পর এক নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়। এমনকী বালিগঞ্জ, আসানসোলের মতো উপনির্বাচনেও দাঁত ফোটাতে পারল না কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপি। অথচ এদের কাজ শুধুই আগুপিছু না ভেবে রাজ্য সরকারের সমালোচনা করা। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাজ্যজুড়ে যখন প্রবল গতিতে উন্নয়ন চলছে তখন বিজেপি সবকিছুতেই রাজ্যের ব্যর্থতা দেখতে পাচ্ছে। শুধু তাই নয় কেন্দ্রের একাধিক জনমুখী প্রকল্পগুলিতেও পশ্চিমবঙ্গ সেরা। আর সেই দাবি করছে কেন্দ্রের নিজস্ব রিপোর্ট কার্ডই। তবুও বিজেপি রাজ্য সরকার তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা -নিন্দায় সর্বদাই পঞ্চমুখ । অথচ কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের প্রাপ্য টাকাগুলি যে পড়ে আছে সে ব্যাপারে কোনও মন্তব্য নেই রাজ্য বিজেপি নেতাদের । রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে বকেয়া প্রাপ্য মিটিয়ে দেওয়ার জন্য বারবার অনুরোধ জানালেও রাজ্য বিজেপির কোনো নেতাই কেন্দ্রের কাছে তা নিয়ে দাবি করেন না।

আর সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিনে রাস্তা আটকে, জনগণের ভোগান্তি বাড়িয়ে, গণপরিবহন স্তব্ধ করে দিয়ে মিছিল করল বিজেপি। এদিন সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে মিছিল শুরু হয়ে শেষ হয় রানি রাসমণি রোডে। বিজেপির তরফে জানানো হয়েছে এই মিছিলের উদ্দেশ্য রাজ্যজুড়ে চলা সন্ত্রাস এবং হিংসার প্রতিবাদ করা। আগামিকাল অর্থাৎ মঙ্গলবার এই একই ইস্যু নিয়ে কর্মসূচি রয়েছে। দুপুর একটায় ধর্মতলায় গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অনশন সত্যাগ্রহে বসবেন বিজেপি নেতারা।

কিন্তু প্রশ্ন হল এভাবে কী প্রমাণ করতে চাইছেন বিজেপি নেতারা? জনসমর্থন নেই এতটুকুও। পুরোপুরি জনবিচ্ছিন্ন হয়ে এখন রাজপথে মিছিল করে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার চেষ্টায় বিজেপি নেতারা।

Previous articleতৃতীয় তৃণমূল সরকারের প্রথম বর্ষপূর্তিতে ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’-এ আরও ২০ লক্ষের অন্তর্ভুক্তি