কফিন থেকে ‘বেঁচে উঠে’ ভয়ে হার্ট অ্যাটাক! শ্রাদ্ধেই চরম পরিণতি মহিলার

চিকিৎসক(Doctor)স্ত্রীকে মৃত ঘোষণা করেছিলেন। এরপর নিয়ম মেনে স্বামী তাঁর পারলৌকিক ক্রিয়ার ব্যবস্থা করেন। কফিনে(Coffin) শায়িত ছিলেন স্ত্রী। এসছিলেন অতিথি এবং অভ্যাগত। হঠাৎ ওই মহিলা চিরঘুমের শয্যা থেকে আচমকাই জেগে উঠলেন। চোখ খুলেই নিজের শ্রাদ্ধানুষ্ঠান(Funeral Ceremony)দেখে আতঙ্কে চিৎকার করে ওঠেন তিনি এবং আবার সঙ্গে সঙ্গে অচেতন হয়ে যান।

এই ঘটনাটি ঘটার সময় তাঁর স্বামী ছিলেন সামনে। স্ত্রীকে বেঁচে উঠতে দেখে হতচকিত হয়ে পড়েন, মুহূর্তে সামলে নেন। তৎক্ষণাৎ  স্ত্রীকে নিয়ে ছুটে  যান হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসা শুরু হওয়ার কয়েক মিনিটের মধ্যেই আবার মৃত্যু হয় তাঁর। চিকিৎসকরা জানান হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে মহিলার। মৃতার নাম ফাজিলিউ মুখামেৎজানভ।তাঁর বয়স ৪৯।

আরও পড়ুন:ভারতের মুখ্য নির্বাচন কমিশনার হচ্ছেন রাজীব কুমার, দায়িত্ব নেবেন ১৫ মে

এই ঘটনায় ওই মহিলার স্বামী চিকিৎসকদের কাছে জবাব তলব করেছেন। তাঁর অভিযোগ চিকিৎসকদের অবহেলাতেই প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাননি তাঁর স্ত্রী।খাস নিজেরই শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে কফিনে শায়িত অবস্থায় হঠাৎ অতিথি অভ্যাগতদের সামনে চোখ মেলে উঠেন। তাঁকে বেঁচে উঠতে দেখে উপস্থিত অতিথিরা কোথায় ভয় পেয়ে যাবেন উল্টে মহিলা নিজেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন এবং সেই আতঙ্কেই আবার হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। ওই দম্পতি রাশিয়ার কাজানের বাসিন্দা।

তাঁর স্বামী এই ঘটনায় চিকিৎসকদের দোষারোপ করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, চিকিৎসকরা ভুল করে তাঁর স্ত্রীকে মৃত ঘোষণা না করলে সঠিক চিকিৎসা হত স্ত্রী-র। হয়তো শেষপর্যন্ত বেঁচেও যেতে পারতেন।




Previous articleমোবাইল নিয়ে ঝামেলা, বৌমার কান কামড়ে কেটে দিল শাশুড়ি