ঋণে জর্জরিত! নিজের গাড়িতে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে গায়ে আগুন নাগপুরের ব্যবসায়ীর

ঋণে জর্জরিতে হয়েই পরিবার সহ অস্বাভাবিক মৃত্যুর চেষ্টা করেছেন তিনি। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যবসায়ীর

ঋণে জর্জরিত! নিজের গাড়িতে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে গায়ে আগুন লাগালেন নাগপুরের এক ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার বিকেলে নাগপুরের খাপারি পুনারাভাসান এলাকায় এমনই দৃশ্যের সাক্ষী থাকল এলাকার পথ চলতি মানুষ। তাঁরাই পুলিশে খবর দেন।পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মধ্যাহ্নভোজ করাবেন বলে হোটেলে যাওয়ার জন্য স্ত্রী ও ছেলেকে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হন ওই ব্যবসায়ী। মাঝপথে নিজের গাড়িতেই স্ত্রী, সন্তান ও নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন ওই ব্যক্তি। ঋণে জর্জরিতে হয়েই পরিবার সহ অস্বাভাবিক মৃত্যুর চেষ্টা করেছেন তিনি। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যবসায়ীর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁর স্ত্রী ও সন্তানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ একুশের সমাবেশে খাদির তৈরি বিশেষ ড্রেস কোড তৃণমূলের

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ব্যক্তির নাম রামরাজ গোপালকৃষ্ণ ভাট বয়স(৫৮)। ঝলসানো অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে তাঁর স্ত্রী সঙ্গীতা ভাট(৫৫) ও ছেলে নন্দন ভাটকে(৩০)। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গাড়িটি দাউ দাউ করে জ্বলছিল। তারপরই এক মহিলা ও যুবক কোনও রকমে গাড়ির দরজা খুলে বেরিয়ে আসেন। যদিও ততক্ষণ অনেকটাই অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন তাঁরা। এরপরই আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের উদ্ধার করে পুলিশ। রামরাজের বাড়ি থেকে একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর নোটও উদ্ধার করেছে পুলিশ। সেখানে ওই ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, বাজারে প্রচুর দেনা করে ফেলেছিলেন তিনি। দেনা মেটাতে না পেরেই এই সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।

 

 

Previous articleআন্তর্জাতিক বাজারে কমেছে দাম, জ্বালানি তেলে রফতানি কর কমাল কেন্দ্র
Next articleZubeen Garg: অসমে গুরুতর অসুস্থ জুবিন গর্গ, এয়ার অ্যাম্বুল্যান্সে স্থানান্তরিত করার চেষ্টা