প্রধান শিক্ষিকার পদ খালি, শূন্যপদে বসে স্কুল চালাচ্ছেন ‘গ্রুপ ডি’ কর্মী

পশ্চিম মেদিনীপুরের (West Medinipur) দাসপুরের আনন্দময়ী জুনিয়র বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার পদটি খালি। আর সেই শূন্যপদে বসে স্কুল চালাচ্ছেন এক গ্রুপ ডি (Group D) কর্মী! শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

নারী শিক্ষার প্রসারে স্কুলটি গড়ে তোলেন এলাকারই মানুষজন। সরকারি সমস্ত অনুদানও পায় স্কুলটি। ২০২১ সালের স্কুলের প্রধান শিক্ষিকার আকস্মিক মৃত্যুর পর থেকেই চরম অব্যবস্থা আনন্দময়ী জুনিয়র বালিকা বিদ্যালয়ে। উপায় না দেখেই না কি প্রধান শিক্ষকের পদে বসেন গ্রুপ ডি কর্মী শিবপ্রসাদ চৌধুরী (Shibaprasad Choudhury)। তবে স্থায়ী শিক্ষিকা নিয়োগের পথে না হেঁটে অস্থায়ীভাবে এলাকার কিছু বেকার তরুণীদের দিয়ে স্কুলের পঠনপাঠন চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। গ্রুপ ডি কর্মী হয়েও মাঝে মধ্যে নিজেই ক্লাস নিচ্ছেন। শিক্ষা দফতর থেকে শুরু করে শিক্ষামন্ত্রী সকলের দ্বারস্থ হলেও স্কুলে এসে পৌঁছননি কোনও স্থায়ী শিক্ষিকা- অভিযোগ পরিচালন সমিতির।

তবে এভাবে আর কতদিন চলবে? তার কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি শিবপ্রসাদ। রাজ্য সরকারের উপরই ভরসা তাঁরা। অন্যদিকে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সহ-শিক্ষা অধিকারিক মানবেন্দ্র ঘোষ সমস্ত ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, পুরো বিষয়টি জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়েছে। তাঁর আশা দ্রুত শিক্ষক নিয়োগ হবে।


Previous articleশিক্ষা দফতরের ১৮ হাজার শূন্যপদের হিসাব চাইল হাইকোর্ট