Emami EastBengal: প্রতিক্ষার অবাসন, হয়ে গেল চুক্তিপত্র সই, পথ চলা শুরু ইমামি ইস্টবেঙ্গলের

ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক তৈরি হল। ইমামিকে ইস্টবেঙ্গলের দরকার শুধু নয়, ইস্টবেঙ্গলেরও ইমামিকে দরকার। আমরা ভালো কাজ করব', বললেন আদিত‍্য আগরওয়াল

প্রতিক্ষার অবাসন। মঙ্গলবার বিকেলে শহরের এক পাঁচতারা হোটেল চুক্তি সই হয়ে গেল ইমামি ও ইস্টবেঙ্গলের ( Emami EastBengal)। এদিন ইমামি গ্রুপের তরফ থেকে উপস্থিত ছিলেন আদিত্য আগরওয়াল, মনীশ গোয়েঙ্কা এবং সন্দীপ আগরওয়াল। অপরদিকে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের পক্ষ থেকে ছিলেন ক্লাব সচিব কল্যাণ মজুমদার, শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকার এবং অন্যান্যরা। ‌এছাড়াও চুক্তিপত্র অনুষ্ঠানে উপস্থিত লাল-হলুদের প্রাক্তন ফুটবলাররা।

ইমামি ইস্টবেঙ্গল, মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে হয়ে গেল চুক্তিপত্র সই। যেখানে ইস্টবেঙ্গলের শেয়ার ২৩ শতাংশ ৭৭ শতাংশ শেয়ার নিজেদের কাছে রাখছে ইমামি। বোর্ডে থাকছেন সাত জন ইমামির প্রতিনিধি আর ইস্টবেঙ্গল থেকে থাকছেন তিন প্রতিনিধি। ডুরান্ড কাপ, কলকাতা লিগ ইমামি ইস্টবেঙ্গল নামেই খেলবে লাল-হলুদ ব্রিগেড। অপরদিকে জানা যাচ্ছে আইএসএলে লাল-হলুদ ক্লাব খেলবে ইস্টবেঙ্গল নামে। মঙ্গলবার এই ঐতিহাসিক চুক্তি করে উচ্ছসিত ইমামি এবং লাল-হলুদ কর্তারা। এই চুক্তি নিয়ে ইমামি কর্তা আদিত‍্য আগরওয়াল বলেন, “এটা ঐতিহাসিক দিন। আজকের এই দিনের জন্য অনেকদিন অপেক্ষা করেছি। এক নতুন পথে যাত্রা শুরু করলাম আমরা। ইস্টবেঙ্গল ক্লাব বাঙালির আবেগ- ট্র্যাডিশন। ইমামিও শুধু একটা কোম্পানি নয়। আমাদের  কিছু দায়িত্ব রয়েছে। এখানেই বড় হয়েছি। আমরা তাই শহরের আবেগটা বুঝি। সেই আবেগ আর ট্র্যাডিশনকে সঙ্গে নিয়েই এগিয়ে যেতে চাই।”

আসন্ন মরশুমের জন‍্য তারা যে অনেকটা পিছিয়ে থেকে শুরু করছেন তা মেনে নিলেন আদিত‍্য আগরওয়াল। তিনি বলেন, ”আমরা কিছুটা পিছিয়ে থেকে শুরু করেছি, এটা ঠিক। শেষ এক-দেড় মাসে আমরা যে ভাবে কাজ করেছি তাতে পিছিয়ে থেকেও আমরা হারানো জমি উদ্ধার করব। আমাদের বিশ্বাস রয়েছে। আপনাদের বিশ্বাস থাকতে হবে। ধৈর্য রাখতে হবে। সমস্ত সমর্থকদের কাছে আমাদের এটাই অনুরোধ। ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক তৈরি হল। ইমামিকে ইস্টবেঙ্গলের দরকার শুধু নয়, ইস্টবেঙ্গলেরও ইমামিকে দরকার। আমরা ভালো কাজ করব।”

ইমামির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার পর লাল-হলুদ শীর্ষ কর্তা দেবব্রত সরকার বলেন,” এটা ঐতিহাসিক চুক্তি। আমরা আগামী দিনে ভারতবর্ষের সেরা দল বানাব।”

ইস্টবেঙ্গলের হেডকোচ হয়েছেন স্টিফেন কনস্ট্যান্টাইন। সেই নিয়ে ইমামি কর্তা আদিত‍্য গোয়েঙ্কা বলেন,” আমরা স্টিফেন কনস্ট্যান্টাইন কে হেড কোচ করে এনেছি কারণ তিনি ভারতীয় ফুটবলারদের ভালোমতো চেনেন। তিনি কয়েকদিনের মধ্যেই ভারতে চলে আসবেন।” একই কথা বলেন লাল-হলুদ কর্তা দেবব্রত সরকারও।

আরও পড়ুন:লেজেন্ডস ক্রিকেট লিগে খেলবেন মহারাজ, বিপক্ষে ইয়ন মর্গ্যান, ব্রেটলি : সূত্র

 

Previous article“ওটা ওনার ব্যক্তিগত নয়”, এবার বিধানসভায় পার্থর ঘর বন্ধ করলেন স্পিকার