হাসপাতালে চর্মরোগ বিভাগে ১৫ বছর ধরে ব্যবহার করা হচ্ছে একই তোষক !

জানা গিয়েছে, গুরু গোবিন্দ সিং মেডিক্যাল কলেজের ত্বক-বিভাগে ৩০টি তোষকের মধ্যে ২০টি ১৫ বছর ধরে বদলানোই হয়নি।

এমনও হয়! একটি হাসপাতালের স্কিন ওয়ার্ডে দিব্যি ব্যবহার করা হচ্ছে ১৫ বছরের পুরনো তোষক!পাঞ্জাবের ফরিদকোটের গুরু গোবিন্দ সিং মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এই কাণ্ড কারখানা প্রকাশ্যে আসতেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা দেশ জুড়ে।

ঘটনার সূত্রপাত দিন কয়েক আগে। হয়তো এই ঘটনা কখনও সামনেই আসত না। কিন্তু বিধি বাম। বাবা ফরিদ ইউনিভার্সিটি অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেস-এর ভাইস চ্যান্সেলর ডাঃ রাজ বাহাদুর অসম্মানিত বোধ করে পদত্যাগ করেন দিন কয়েক আগে। অভিযোগ, রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী তাঁকে হাসপাতালের একটি নোংরা তোষকে শুতে বাধ্য করেছিলেন।

জানা গিয়েছে, গুরু গোবিন্দ সিং মেডিক্যাল কলেজের ত্বক-বিভাগে ৩০টি তোষকের মধ্যে ২০টি ১৫ বছর ধরে বদলানোই হয়নি।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক সিনিয়র নার্স জানিয়েছেন, কর্তৃপক্ষকে বার বার বলার পরেও ওই নোংরা, ছেঁড়াখোঁড়া তোষক বদলানোর প্রয়োজন মনে হয়নি। তিনি জানান, গত বছরও নতুন করে দাবি জানানো হয়েছিল, কিন্তু কোনও ফল হয়নি। এমনকি যখন বন্দিদের জন্য ওয়ার্ড বানানো হয় তখনও তোষক বদলানোর অনুরোধ করা হয়েছিল। কর্তৃপক্ষের তরফে সাফ বলে দেওয়া হয়, কোনও তোষক নেই।
সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয়, যে হাসপাতালে বিভিন্ন চর্মরোগ নিয়ে চিকিৎসার জন্য রোগীরা আসেন সেই হাসপাতালেরই এমন বেগ এমন নোংরা হওয়ায়, আদৌ রোগীরা কি পরিষেবা পান তা নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন দেখা দিয়েছে।

 

 

Previous articleলেজেন্ডস ক্রিকেট লিগে খেলবেন মহারাজ, বিপক্ষে ইয়ন মর্গ্যান, ব্রেটলি : সূত্র