বীরবাহাকে কুরুচিকর মন্তব্য শুভেন্দুর, প্রতিবাদে সরব তৃণমূলের আদিবাসী নেতৃত্ব

রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ্য করে অখিল গিরির(Akhil Giri) মন্তব্যকে হাতিয়ার করে রাজনীতির ঘোলা জলে মাছ ধরতে শুরু করেছে বিজেপি(BJP)। যদিও ঘটনার পর ইতিমধ্যেই নিজের মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন অখিল গিরি। এরই মাঝে আদিবাসী নেত্রী বীরবাহা হাঁসদা(Birbaha Hansda) ও দেবনাথ হাঁসদাকে(Debnath Hansda) উদ্দেশ্য করে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর(Shubhendu Adhikari) মন্তব্য প্রকাশ্যে উঠে এসেছে। যেখানে শুভেন্দুকে বলতে শোনা যাচ্ছে, “বীরবাহা হাঁসদা ও দেবনাথ হাঁসদারা আমার পায়ের তলায় থাকে।” তাঁর এই মন্তব্যে আদিবাসীদের প্রতি বিজেপির মানসিকতা ঠিক কি তা তুলে ধরে সরব হয়েছেন তৃণমূলের(TMC) আদিবাসী নেতা নেত্রীরা।

আদিবাসীদের উদ্দেশ্যে শুভেন্দুর বক্তব্যের পাল্টা তোপ দেগে এক ভিডিও বার্তায় তৃণমূল সাংসদ কুনার হেমব্রম বলেন, “পশ্চিমবঙ্গ সহ ভারতের সমস্ত অঞ্চলের আদিবাসীরা কালো চামড়ার হয়। ভারতের আদি বাসিন্দারাই আদিবাসী। আদিবাসীরা দেখতে কালো।” এরপরই তিনি বলেন, “ব্রিটিশরা ২০০ বছর এদেশে শাসন চালিয়েছে। তারা চলে গেছে। কিন্তু কিছু সাদা চামড়ার শুয়োর আমাদের দেশে এখনো রয়ে গেছে।”

শুভেন্দুকে তোপ দেগে এদিন রাজ্যের মন্ত্রী তথা আদিবাসী নেত্রী বীরবাহা হাঁসদা বলেন, “লালগড়ের মাটিতে দাঁড়িয়ে নেতাই দিবসের দিন শুভেন্দু অধিকারী যেভাবে আমাকে ও দেবনাথ হাঁসদাকে আক্রমণ করেছিলেন তা নিয়ে কোন প্রতিবাদ হয়নি। আমরাও আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ। আমি সাঁওতাল মহিলা। আসলে বিজেপি দলটা চিরকাল আদিবাসী বিরোধী। এরা আদিবাসীদের ভোট ব্যাংকের জন্য ব্যবহার করে। বিজেপিকে প্রশ্ন আদিবাসী সম্প্রদায়কে অপমান করার জন্য আপনারা কি শুভেন্দুর পদত্যাগ দাবি করেছেন। আশা করবো আগামী দিনে আপনারা শুভেন্দু অধিকারীর পদত্যাগ দাবি করবেন।”

এছাড়াও শুভেন্দুকে আক্রমণ জানিয়েছেন তৃণমূল নেতা দেবু টুডু ও সন্দেশখালি ২ এর বিধায়ক সুকুমার মাহাতো। তৃণমূলের আদিবাসী নেতা দেবু টুডু বলেন, “শুভেন্দু অধিকারী যে ভাষায় আমাদের আদিবাসী নেত্রী বীরবাহা হাঁসদাকে অপমান করেছেন তার নিন্দা জানানোর ভাষা নেই। এই বিজেপি এই শুভেন্দু অধিকারীরা চিরকাল আদিবাসীদের পায়ের নিচে দাঁড়িয়ে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আমি রাজ্যের সকল আদিবাসীদের কাছে আবেদন জানাচ্ছি এই অসভ্য বর্বরদের বিরুদ্ধে আসুন আমরা একত্রে প্রতিবাদ করি।” পাশাপাশি সুকুমার মাহাতো বলেন, “আদিবাসী নেত্রী বীরবাহা হাঁসদাকে উদ্দেশ্য করে শুভেন্দু অধিকারী যে মন্তব্য করেছেন তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বাংলার আদিবাসীরা অনেক ভালো আছি। তবে এই গাদ্দার মীরজাফরদের আদিবাসী সম্পর্কে যে মানসিকতা সেটা স্পষ্ট হয়ে ফুটে উঠেছে শুভেন্দু অধিকারীর মন্তব্যে। আমি এই ধরনের মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।”

Previous articleসবজির দাম নিয়ে ক্ষুব্ধ মমতা, ডিম- মুরগির মাংসের দামও বেঁধে দেওয়ার নির্দেশ