সামনেই বিশ্বকাপ, একনজের দেখে নেওয়া যাক মহাযুদ্ধ দেখতে আসা সমর্থকদের জন‍্য কী কী বিধিনিষেধ রাখল কাতার প্রশাসন

কাতারে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক বাদ দিয়ে যৌনমিলন এবং সমকামী সম্পর্ক নিষিদ্ধ। এর জন্যও বিশেষ ব্যবস্থা নিচ্ছে কাতারের পুলিশ।

হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন। তারপরই শুরু কাতার ২০২২ বিশ্বকাপ। সেই ফুটবল যুদ্ধের জ্বরে ইতিমধ্যে কাঁপছে ফুটবল বিশ্ব। বিশ্বকাপ দেখতে কাতারে পৌঁছাচ্ছে ফুটবল অনুরাগীরা। মনে করা হচ্ছে দেশ-বিদেশ থেকে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে কাতারে ভিড় জমাবেন প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ। আর সেই কারণেই সতর্ক হচ্ছে ফিফা এবং কাতারের প্রশাসন। ফুটবল বিশ্বকাপ চলাকালীন কাতারে যেন কোন বেআইনি কাজ না হয়, তার জন‍্য বিশেষ নজর রাখছে কাতার প্রশাসন এবং ফিফা। যার কারণে বেশ কিছু বিধিনিষেধ নেওয়া হয়েছে কতৃপক্ষের তরফ থেকে। আর সেই বিধি মেনে না চললে দীর্ঘ দিন কাতারের জেলেও থাকতে হতে পারে ফুটবলপ্রেমীদের। একনজরে দেখে নেওয়া যাক কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে ফিফা এবং কাতার প্রশাসনের তরফ থেকে।

*) কাতারে স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক বাদ দিয়ে যৌনমিলন এবং সমকামী সম্পর্ক নিষিদ্ধ। এর জন্যও বিশেষ ব্যবস্থা নিচ্ছে কাতারের পুলিশ।

*) প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, শুল্কমুক্ত মদ নিয়ে কোনও ভাবেই কাতারে প্রবেশ করা যাবে না।

*) কোনও ফুটবলপ্রেমী আদর পুতুল (সেক্স টয়) নিয়ে কাতারে প্রবেশ করলে তাঁদেরও কঠিন শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে কাতারের সরকারি আধিকারিকরা জানিয়েছেন।

*) কাতার বিমানবন্দরে প্রবেশ করা যাবে না শূকরের মাংস নিয়েও। শূকরের মাংস নিয়ে কাতারে প্রবেশ করলেই কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হতে পারে।

*) কাতারে ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে এসে এক রাতের ‘অবৈধ’ যৌনমিলন (ওয়ান নাইট স্ট্যান্ড) করা যাবে না। এই বিষয়ে ধরা পড়লে হতে পারে সাত বছরের জেল। এছাড়াও বিশ্বকাপ ফুটবল মানেই দেখা যায় ম্যাচ শেষে রাতভর পার্টি। কিন্তু কাতারে তা নিষিদ্ধ। সমর্থকদের সাবধান করে দেওয়া হয়েছে, এই ধরনের কোনও আশা যেন না রাখা হয় আসন্ন বিশ্বকাপ থেকে।

*) পর্নোগ্রাফি বানানো এবং জনসমক্ষে পর্নোগ্রাফি দেখার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। কাতারের বিদেশ মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করে জানানো হয়েছে, যাতে ফুটবল দেখতে আসা মানুষেরা স্থানীয় ঐতিহ্য ও রীতিনীতিকে সম্মান করেন।

*)যে কোনও ধরনের ধর্মীয় বই নিয়ে আসার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বিমানবন্দরে জিনিসপত্র তল্লাশি করার সময় প্রেসক্রিপশন ছাড়া কোনও ওষুধ পাওয়া গেলেও হাজতবাস করতে হতে পারে আগত ব্যক্তিদের।

 

*)কাতারে নির্দিষ্ট কিছু হোটেল এবং সমুদ্রের ধারে বিশেষ কিছু জায়গা ছাড়া মদ্যপানে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তাই এই বিষয়টিও বিশ্বকাপ দেখতে আসা দর্শকদের নজরে রাখতে বলা হয়েছে। জুয়া খেলায় জন্য ধরা পড়লেও কারাবাস হতে পারে বলে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে। কাতারে ইতিমধ্যেই নিরাপত্তারক্ষীদের সংখ্যা অনেক পরিমাণে বাড়ানো হয়েছে।

আরও পড়ুন:বিচ্ছেদের জল্পনার মাঝেই সানিয়াকে জন্মদিনে বিশেষ বার্তা শোয়েবের

 

 

Previous articleGold Silver Rate: আজ সোনা রুপোর দাম কত? জেনে নিন এক ঝলকে