নিয়োগে বাধা! বামেদের উপর বেজায় ক্ষুব্ধ SLST চাকরিপ্রার্থীরা

আইনজীবী তথা বাম নেতা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের উপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। তাঁদের মতে, বাম আইনজীবীর লড়াইয়েই ২০১৯-এ ১৪০০ নিয়োগ পেয়েছেন। কিন্তু এখন তাঁরা বাধা দিচ্ছেন। এইভাবে তাঁদের নিয়োগে বামপন্থী আইনজীবীরা যদি বাধা দেন তাহলে বাংলায় সিপিএমের অস্বস্তি শেষ করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন চাকরিপ্রার্থীরা।

একসময়ে আন্দোলনে সমর্থন দিয়েছিলেন। কিন্তু একের পর এক মামলায় ক্রমশ পিছিয়ে যাচ্ছে নিয়োগ প্রক্রিয়া। এই ইস্যুতেই সিপিআইএম নেতা তথা আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য-সহ বামেদের উপর বেজায় চটেছেন SLST চাকরিপ্রার্থীরা। তাঁদের অভিযোগ, এরফলেই নিয়োগে বাধা পড়ছে। হুঁশিয়ারি দিয়ে চাকরিপ্রার্থীরা বলেন, সহযোগিতা না পেলে আলিমুদ্দিন স্ট্রিটে সিপিআইএমের (CPIM) সদর দফতর বন্ধ করে দেওয়া হবে।

একের পর এক মামলায় আটকে রয়েছে SLST নিয়োগ। এই নিয়ে বৃহস্পতিবার, আইনজীবী তথা বাম নেতা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের (Bikas Ranjan Bhattacharya) উপর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন চাকরিপ্রার্থীরা। তাঁদের মতে, বাম আইনজীবীর লড়াইয়েই ২০১৯-এ ১৪০০ নিয়োগ পেয়েছেন। কিন্তু এখন তাঁরা বাধা দিচ্ছেন। এইভাবে তাঁদের নিয়োগে বামপন্থী আইনজীবীরা যদি বাধা দেন তাহলে বাংলায় সিপিএমের অস্বস্তি শেষ করে দেবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন চাকরিপ্রার্থীরা।

SLST চাকরিপ্রার্থীদের কথায়, “আজ যখন চাকরি পেতে চলেছি তখন বাধা দিচ্ছেন কেন? মিডিয়াতে বিবৃতি দিচ্ছেন বিকাশ ভট্টাচার্য, সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়-সহ বামপন্থী আইজীবীরা। কী কারণে, মুখ দেখাতে?” চাকরিপ্রার্থীদের নিশানায় বাম যুবনেত্রী মীনাক্ষি মুখোপাধ্যায়ও। বিক্ষোভের নামে তিনি রাস্তায় নাটক করছেন বলে তীব্র আক্রমণ করেন চাকরিপ্রার্থীরা। ”আজ যখন সুষ্ঠুভাবে চাকরি পেতে চলেছি, তখন নাটক করছেন!”

এর আগে তৃণমূল সুপ্রিমো তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)ও সভামঞ্চ থেকে বিকাশ ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন। বলেন, বিকাশবাবুদের বলুন, মামলা করে চাকরি আটকেছেন। এখন আপনিই চাকরি দেবেন। এর আগেও ২০০৯ সালের প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরিপ্রার্থীরা তৃণমূল (TMC) মুখপাত্র কুণাল ঘোষের (Kunal Ghosh) সঙ্গে দেখা করে, বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান। এবার খোদ চাকরিপ্রার্থীদের ক্ষোভের মুখে বর্ষীয়ান বাম নেতা তথা আইনজীবী।

Previous article“প্রধানমন্ত্রীর কথা যাঁরা শুনছেন না, তাঁদের হাত ভেঙে গুঁড়িয়ে দেব।”, হুমকি বিজেপি নেতার