“প্রধানমন্ত্রীর কথা যাঁরা শুনছেন না, তাঁদের হাত ভেঙে গুঁড়িয়ে দেব।”, হুমকি বিজেপি নেতার

“প্রধানমন্ত্রীর কথা যাঁরা শুনছেন না, তাঁদের হাত ভেঙে গুঁড়িয়ে দেব।” পূর্ব বর্ধমানের কালনার একটি পোস্ট অফিসে ডেপুটেশন জমা দিতে গিয়ে ডাক বিভাগের কর্মচারীদের উদ্দেশ্যে এমনই হুঙ্কার দিলেন পূর্ব বর্ধমানের বিজেপি জেলা সভাপতি গোপাল চট্টোপাধ্যায়। বিজেপি নেতার বিতর্কিত এই মন্তব্যের কটাক্ষ করে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব জানান, ওঁরা তো ভেঙে গুড়িয়ে দেওয়ার রাজনীতিই করেন।

আরও পড়ুন:SIT ছেড়ে অসমের IG হচ্ছেন অখিলেশ, কে আসবেন দায়িত্বে? বাড়ছে জল্পনা!

সম্প্রতি কালনার পোস্ট অফিসে আধার কার্ড করাতে গেলে সমস্যায় ভুগছেন এলাকার বাসিন্দারা। সেই সমস্যার জন্য বুধবার বিজেপির তরফে ডেপুটেশন জমা দেওয়া হয়। ডেপুটেশন জমা দিতে যান পূর্ব বর্ধমান জেলার বিজেপির সভাপতি গপাল চট্টোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বিজেপি কর্মীরা। সেই ডেপুটেশন জমা দেওয়ার আগে ভাষণে গোপাল চট্টোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যায়, “প্রধানমন্ত্রীকে কলঙ্কিত যাঁরা করছেন, সেই কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলছি, প্রধানমন্ত্রীকে কলঙ্কিত করার প্রয়াস যে হাতে করবেন, তাঁদের হাত ভেঙে গুঁড়িয়ে দেব।” তিনি আরও জানান, “সবাই এখানে অসৎ নন। কিন্তু কয়েকজন এঁদের মধ্যে অসৎ আছেন। যে সব সৎ কর্মীরা আছেন, প্রয়োজনে অসৎ কর্মীদের চিহ্নিত করে আমাদের জানান। আমরা আপনাদের পাশে আছি। কিন্তু কালনার মানুষের জীবন নিয়ে, কাজ নিয়ে হয়রানি করা যাবে না।”

কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের বিরুদ্ধে এইরকম মন্তব্য করায় তৈরি হয় বিতর্ক। বিষয়টি নিয়ে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বও। কালনার পোস্ট অফিসের কেন্দ্রীয় কর্মচারীদের মধ্যে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন অনেকে। বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ (Swapan Debnath) বলেন, “BJP সব সময় এই ধরনের রাজনীতিতেই বিশ্বাসী। ভেঙে দেব, গুঁড়িয়ে দেব বলেন। কিন্ত বাংলার ১০০ দিনের কাজের টাকা আটকে আছে। সারের দাম বাড়ছে কেন ? জনস্বার্থ বিরোধী কেন্দ্রীয় সরকার যেসব ব্যবস্থা নিয়েছেন, পেট্রোল, ডিজেল, জীবনদায়ী ওষুধের দাম বাড়ছে, এই বিষয় কেন্দ্রীয় সরকারকে কেন জানাচ্ছেন না? এই বিষয় নিয়ে মুখ খুলতে বলুন এঁদের।”

Previous articleSIT ছেড়ে অসমের IG হচ্ছেন অখিলেশ, কে আসবেন দায়িত্বে? বাড়ছে জল্পনা!