নাগাড়ে জেরা! জেলে আচমকা অসুস্থ অনুব্রত, সাতসকালেই নিয়ে যাওয়া হল হাসপাতালে

পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার রাতে আচমকাই অনুব্রত মণ্ডলের বুকে ব্যথা শুরু হয়। জেল কর্তৃপক্ষের বিষয়টি নজরে আসার পরই দেরি না করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। বারবার তদন্তকারী সংস্থার জেরার পরই জেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনুব্রত।

আসানসোল সংশোধনাগারে আচমকাই অসুস্থ (Ill) হয়ে পড়লেন বীরভূম তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mondal)। অসুস্থ অনুভব করায় রবিবার সকালেই আসানসোল জেলা হাসপাতালে (Asansol District Hospital) নিয়ে যাওয়া হয় অনুব্রতকে। হাসপাতালে ৪৫ মিনিট হাসপাতালে ছিলেন অনুব্রত। ৩ জন চিকিৎসক তাঁর পরীক্ষা নিরীক্ষা করেন। তারপর তাঁকে হাসপাতাল থেকে বের করে আনা হয়। এরপর নিজে হেঁটেই পুলিশের গাড়িতে ওঠেন বীরভূমের জেলা সভাপতি।

পুলিশ সূত্রে খবর, শনিবার রাতে আচমকাই অনুব্রত মণ্ডলের বুকে ব্যথা (Chest Pain) শুরু হয়। জেল কর্তৃপক্ষের বিষয়টি নজরে আসার পরই দেরি না করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। বারবার তদন্তকারী সংস্থার জেরার পরই জেলে অসুস্থ হয়ে পড়েন অনুব্রত। জেল সূত্রে জানা গিয়েছে, জেরার পরই হালকা বুকে ব্যথা অনুভব করছিলেন অনুব্রত। জেলেই তাঁর চিকিৎসার জন্য প্রাথমিক কিছু বন্দোবস্ত প্রথম থেকেই রাখা ছিল, ছিল অক্সিজেন সাপোর্টও (Oxygen Support)।

রবিবার বেলা ১১টা নাগাদ অনুব্রতকে জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তবে গাড়ি থেকে নেমে হেঁটেই হাসপাতালে ঢোকেন অনুব্রত। উল্লেখ্য, গরু পাচার মামলায় (Cow Smuggling) লাগাতার জেলে গিয়ে অনুব্রত মণ্ডলকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা।  শনিবারও তাঁকে জেলে নিয়ে জেরা করেন আধিকারিকরা। দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয় অনুব্রতকে। তারপরই অসুস্থতা বোধ করেন তিনি। তবে জেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শীত পড়ছে, তাই বার্ধক্যের কারণে কিছুটা অসুস্থ হতে পারেন অনুব্রত, এমনিতে শারীরিক কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু রাতে হালকা বুকে ব্যথা অনুভব করেন।

Previous articleপ্রয়াত বাবু মানি, শোকের ছায়া ভারতীয় ফুটবলমহলে