রহস্যমৃত্যু এনআইএর ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় থাকা হরিন্দর সিং রিন্ডার

অন্য একটি সূত্রের দাবি, দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির রোগে ভুগছিল রিন্ডা। গত ১৫ দিন ধরে লাহোরের হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিল এবং সেখানেই তার মৃত্যু হয়েছে।

ফের এক জেহাদির রহস্যমৃত্যু। এনআইএর ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ তালিকায় নাম ছিল ওই জেহাদির। পাকিস্তানের মাটিতে মৃত্যু হয়েছে খলিস্তানি জঙ্গি হরিন্দর সিং রিন্ডার।রিন্ডার জন্য ১০ লক্ষ টাকা পুরস্কার ধার্য করেছিল এনআইএ। রহস্যজনকভাবে সেই জেহাদির মৃত্যু হল পাকিস্তানে।

যদিও রিন্ডার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।গ্যাংস্টার দাভিন্দর ভাম্বিয়ার গোষ্ঠী সোশ্যাল মিডিয়ায় হত্যার দায় স্বীকার করেছে।আবার অন্য একটি সূত্রের দাবি, দীর্ঘদিন ধরেই কিডনির রোগে ভুগছিল রিন্ডা। গত ১৫ দিন ধরে লাহোরের হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিল এবং সেখানেই তার মৃত্যু হয়েছে।

নিশ্চয়ই ভাবছেন কে এই জেহাদি ? পাঞ্জাবের তরন তারন এলাকার বাসিন্দা হরিন্দর সিং রিন্ডা। ২০০৮ সালে ব্যক্তিগত আক্রোশে এক প্রতিবেশীকে খুন করে অপরাধ জগতে পথ চলা শুরু। চণ্ডিগড়ের হোসিয়ারপুরে প্রকাশ্যে এক পঞ্চায়েত প্রধান সৎনাম সিংকে খুন করে প্রথমবার খবরে শিরোনামে আসে। সম্প্রতি পাঞ্জাবের গোয়েন্দা দফতরে হামলা, পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুসেওয়ালার মৃত্যুর মতো একাধিক কুকীর্তিতে নাম জড়িয়েছিল তার।

এমনকী, সীমান্তের ওপাড় থেকে এদেশে অস্ত্র, নেশার দ্রব্য পাচারের মতো কাজ সামলাত এই কুখ্যাত জেহাদি। এরপর চলতি বছরে চন্ডিগড়ে পুলিশের গোয়েন্দা দফতরে রকেট হামলা, লুধিয়ানা আদালতে বিস্ফোরণের মতো ঘটনায় হাত ছিল রিন্ডার। মে মাসে হরিয়ানার একটি গাড়ি থেকে বিপুল বিস্ফোরক ও নেশার দ্রব্য উদ্ধার হয়েছিল, সেই মামলার চার্জশিটেও নাম রয়েছে তার। পাঞ্জাবি গায়ক সিধু মুসেওয়ালার খুনের মামলাতেও নাম জড়িয়েছিল তার।তার খোঁজ চালাচ্ছিল ভারতীয় গোয়েন্দারা। এর মাঝেই পাকিস্তানে রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হল তার।

 

Previous articleফের ব‍্যাটে আগুন ঝরালেন সূর্যকুমার যাদব