অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে সাঁতরাগাছির যানজট! ড্রোন ব্যবহার করতেই ফল মিলল হাতেনাতে

হাওড়ার পুলিশ কমিশনার প্রবীণ কুমার ত্রিপাঠী জানিয়েছেন, আন্দুল রোড দিয়ে পণ্যবাহী যান চলাচল কোনও যানজট ছাড়াই চলেছে। ইতিমধ্যেই যান নিয়ন্ত্রণে প্রায় ২ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

জোরকদমে চলছে সাঁতরাগাছি সেতু (Santragachi Bridge) সংস্কারের (Renovation) কাজ। আর সেকারণে কাজ শুরু হওয়ার পর প্রথমের দিকে যানজট নিয়ন্ত্রণে (Traffic Control) সমস্যা দেখা দিলেও পুলিশের তৎপরতায় বর্তমানে তা অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। আপাতত সাঁতরাগাছি সেতুর একটি লেন দিয়ে গাড়ি চলাচল করছে। আর সেকারণেই দেখা দিচ্ছে তীব্র যানজট। এদিকে মঙ্গলবারই যানজট নিয়ন্ত্রণে ড্রোন (Drone) ব্যবহার করে পুলিশ। যার ফলে পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

তবে শুধুমাত্র কলকাতাগামী ছোট গাড়িগুলিকেই সাঁতরাগাছি সেতুর একটি লেন ব্যবহার করতে দেওয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, সোমবার সপ্তাহের প্রথম কর্মব্যস্ত দিনে বিদ্যাসাগর সেতু (Vidyasagar Setu) এবং সাঁতরাগাছি স্টেশনের মধ্যে যাতায়াত করতে সময় লেগেছিল প্রায় ২০ থেকে ৩০ মিনিট সময়। তবে বর্তমানে সেই সময় অনেকটাই কম লাগছে। হাওড়ার পুলিশ কমিশনার প্রবীণ কুমার ত্রিপাঠী (Commissioner of Police) জানিয়েছেন, আন্দুল রোড (Andul Road) দিয়ে পণ্যবাহী যান চলাচল কোনও যানজট ছাড়াই চলেছে। ইতিমধ্যেই যান নিয়ন্ত্রণে প্রায় ২ হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বিঘ্নে যান চলাচলের সুবিধার্থে সকাল এবং সন্ধেয় আন্দুল রোডে টোটো চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এছাড়াও, বকুলতলা বাসস্ট্যান্ডও স্থানান্তরিত হবে মৌরিগ্রামে।

এদিকে সোমবার সপ্তাহের প্রথম দিনে যানজটের সমস্যা দেখা দেওয়ায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে মঙ্গলবার ড্রোনের ব্যবহার শুরু করে পুলিশ। ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি চালিয়ে দশ মিনিট অন্তর অন্তর যাতে দু’দিকের গাড়ি ছাড়া হয় সেই বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ করা হয়েছে। এছাড়াও কিছু ছোট গাড়ি দাশনগর-শানপুরের দিকে ঘুরিয়ে দেওয়া হয়। একইসঙ্গে বিদ্যাসাগর সেতু মারফত আন্দুল রোড হয়ে কিছু গাড়ি পাঠানো হয় জাতীয় সড়কে। এর ফলে যানজট অনেকটাই এড়ানো সম্ভব হয়।

Previous articleফের মার্কিন মুলুকে বন্দুকবাজের হানা! নিহত অন্তত ১০