একাধিক সন্তান জন্ম দিলে মিলবে সরকারি সাহায্য! ‘উলটপুরাণ’ প্রতিবেশী রাজ্যে

দেশে জনবিস্ফোরণে লাগাম টানতে দুই সন্তান নীতি(Two Child Policy) নিয়ে প্রচার চালাচ্ছে ভারত সরকার। রাজ্যে রাজ্যে জনসংখ্যার ব্যাপক বৃদ্ধি সরকারের অন্যতম মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে উঠেছে। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই এবার উল্টোপথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিল বাংলার প্রতিবেশী সিকিম(Sikim)। এই রাজ্যে জনসংখ্যা ব্যাপকভাবে কমে যাওয়ায় বেশি বেশি সন্তান উৎপাদনে দম্পতিদের উৎসাহ দিচ্ছে সেখানকার সরকার। একাধিক সন্তানের জন্ম দিলে আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করলেন সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী প্রেম সিং তামাং(Prem Singh Tamang)।

সিকিম সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, এই রাজ্যের সরকারি মহিলাকর্মীরা যদি দুটি বা তার বেশি সন্তানের জন্ম দেন, তাহলে তাঁদের পুরস্কৃত (reward) করা হবে। সিকিমের মুখ্যমন্ত্রী প্রেম সিং তামাঙ স্পেশাল ইনক্রিমেন্টের প্রস্তাবে এই বিশেষ ক্ষেত্রে মহিলাদের জন্য ঘোষণা করেছেন। দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম দিলে, এক দফায় হবে একটি ইনক্রিমেন্ট। আর তৃতীয় সন্তানের জন্ম হলে পাবে ফের আর্থিক পুরস্কার। শুধু তাই নয়, সরকারি কর্মীদের মাতৃত্বকালীন ছুটি বাড়ানোর কথা ঘোষণা করে তিনি জানান, মহিলারা ৩৬৫ দিন মাতৃত্বকালীন ছুটি পাবেন। এবং পুরুষরা ৩০ দিন।

আসামের মুখ্যমন্ত্রী তামাং জানিয়েছেন, রাজ্যের লোকসংখ্যা অনেকটাই কম। সে কথা মাথায় রেখেই স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ফার্টিলিটি রেট বাড়াতে জোর দিতে হবে। এ কারণেই অধিক সন্তানের জন্ম দিলে আর্থিক পুরস্কারের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, যারা আগে থেকে একাধিক সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তারাও এই আর্থিক সুবিধা পাবেন। একইসঙ্গে সিকিমের হাসপাতালগুলিতে আইভিএফ পরিষেবা আরও বাড়াতে জোর দিতে বলা হয়েছে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। এমনকী আইভিএফ পরিষেবা যাঁরা নিচ্ছেন, তাঁদেরও তিন লক্ষ টাকা করে আর্থিক পুরস্কার দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সিকিম সরকার।

Previous articleমোহনবাগানে ফিরলেন গ্লেন মার্টিন্স, বাগান ছাড়লেন রড্রিগেজ