প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্যাম্পাসে সরস্বতী আরাধনা করতে চেয়ে ভোটাভুটি, সংখ্যা গরিষ্ঠতা পুজোর পক্ষে

"ডিরোজিয়ান পন্থী'' ভাবধারায় বিশ্বাসী বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে আগে কোনওদিন সরস্বতী পূজা হয়নি। এবার বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিটের তরফে বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী আরাধনার উদ্যোগ নেওয়া হয়।

প্রথমে কলেজ, সেখান থেকে প্রেসিডেন্সি এখন বিশ্ববিদ্যালয়। দীর্ঘ দু’শতকের সোনালী ইতিহাস রয়েছে। পঠন-পাঠনের গুণগত দিক থেকে প্রেসিডেন্সি দেশের অন্যতম এলিট ক্লাস বিশ্ববিদ্যালয় গুলির মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। তবে এখানে কোনওদিন বাগদেবীর আরাধনা হয়নি। অতীতের সেই ট্র্যাডিশন ভেঙে এবার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে হতে চলেছে সরস্বতী পুজো হবে!

“ডিরোজিয়ান পন্থী” ভাবধারায় বিশ্বাসী বিশ্ববিদ্যালয়। এখানে আগে কোনওদিন সরস্বতী পূজা হয়নি। এবার
বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিটের তরফে বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী আরাধনার উদ্যোগ নেওয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে আগেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আবেদন করেছিল তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। সকলের মতামত নিয়ে
তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিট ভোটাভুটি করে। সেখানে মায়ের আরাধনার পক্ষেই সংখ্যালঘু পড়ুয়া রায় দেন। তাই কর্তৃপক্ষের অনুমতি না মিললেও মূল ফটকের বাইরে “অরাজনৈতকভাবে” বাগদেবীর আরাধনা করবে তৃণমূল ছাত্র পরিষেদ।

টুইটারের ভোটাভুটিতে দেখা যাচ্ছে, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্য়ালয়ে সরস্বতীর আরাধনার পক্ষে ভোট পড়েছে ৮৯.৩ শতাংশ। অন্যদিকে ভোট পড়েছে মাত্র ১০.৭ শতাংশ। প্রেসিডেন্সির তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ইউনিটের সম্পাদক অরিত্র মণ্ডল জানান, “এবার আমরা চেয়েছিলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সরস্বতী পূজা হোক অন্যান্য কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো। কিন্তু অনুমতি তো পাইনি। সিদ্ধান্ত হয়েছে গেটের বাইরে অরাজনৈতিকভাবে পুজো করার। বিষয়টি নিয়ে ভোটাভুটিও করেছিলাম। ভোটে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা অংশ নিয়েছিল। তাঁরা চাইছে পুজো হোক। বাইরে থেকেও অনেকে সমর্থন করেছেন, তাঁদেরকেও ধন্যবাদ।”

প্রসঙ্গত, আগামী ২৬ জানুয়ারি সরস্বতী পুজো। প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের এবার ক্যাম্পাসে সরস্বতী পুজো করতে চায় রাজ্যের শাসক দলের ছাত্র সংগঠন। ছাত্রছাত্রীরা জানিয়েছেন, পুজোর অনুমতি চেয়ে একাধিকবার চিঠি, ই-মেল করা হয়েছিল ডিন অফ স্টুডেন্টস অরুণকুমার মাইতিকে। প্রতিবারই চিঠিতে “কনটেন্ট নট ভেরিফায়েড” বলে পুজোর আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন তিনি। যুক্তি খাড়া করে তিনি জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্সি ডিরোজিয়ান পন্থায় বিশ্বাসী, ধর্মনিরপেক্ষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তাই সেখানে কোনও পুজোর অনুমতি দেওয়া সম্ভব নয়। তবে সরস্বতী পুজোর পক্ষে ছাত্রছাত্রীদের একটা বড় অংশের মত ছিল। তাই অনুমতি না পেয়ে গেটের কাছেই পুজো করবেন তাঁরা। এবং সেইমতো প্রস্তুতিও শুরু হয় গিয়েছে।

Previous articleএবার কুন্তলের মুখে নীলাদ্রি ঘোষের নাম,ডায়েরির সাঙ্কেতিক চিহ্ন উদ্ধারে তৎপর ইডি