চূড়ান্ত ‘অসভ্যতামি’! আইএসএফ-র মিছিলকে ‘অবাঞ্ছিত’ কটাক্ষ কুণালের

তবে পুলিশের তৎপরতায় কোনও অশান্তির খবর পাওয়া যায়নি। শান্তিপূর্ণভাবেই গোটা বিষয়টি পুলিশ কড়া হাতে সামলান। তবে এদিন মিছিলের কোনও অনুমতি দেয়নি কলকাতা পুলিশ।

রাজ্য তথা কলকাতা জুড়ে সরস্বতী পুজোর (Saraswati Puja) প্রস্তুতি তুঙ্গে। বৃহস্পতিবার রয়েছে প্রজাতন্ত্র দিবসও (Republic Day)। সেকারণে আজকের মিছিল (Rally) অবাঞ্ছিত (Unwanted)। শুধুমাত্র অশান্তির কারণে এসব করা হচ্ছে। তবে তৃণমূল কোনওভাবেই প্ররোচনায় পা দেবে না। বুধবার আইএসএফ-এর (ISF) মিছিলকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)।

কুণাল আরও জানিয়েছেন, প্রশাসন ও তৃণমূল যথেষ্ট দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করেছে। পুলিশের অনুমতি না মিললেও জোর করে রাস্তা অবরোধ করা হয়েছিল। যার জেরে বন্ধ হয়ে পড়ে যান চলাচল। চরম নাকাল হতে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। অনেক অনুরোধ করলেও কোনও হেলদোল দেখা যায়নি। এরপর পুলিশ আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকিকে গ্রেফতার করে। এটাই স্বাভাবিক।

উল্লেখ্য, বুধবার দুপুরে ধর্মতলা থেকে ভাঙড়ের আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি তাঁর দলবল নিয়ে পুলিশের উপর চরম ‘অসভ্যতামির’ অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিলেন। তবে শুধু বিধায়কই নন, পুলিশের উপর আক্রমণের কারণে গ্রেফতার করা হয় আরও ১৮ আইএসএফ কর্মী সমর্থককে। তারই প্রতিবাদে পুলিশের নিষেধাজ্ঞাকে অগ্রাহ্য করেও বুধবার দুপুরে শিয়ালদহ থেকে আইএসএফের ডাকে মিছিল করে নাগরিক সমাজ।

অবিলম্বে নওশাদ সিদ্দিকির মুক্তির দাবি জানিয়ে এই মিছিলের ডাক দেওয়া হয়েছিল। শিয়ালদহ (Sealdah) থেকে শুরু হয়ে ধর্মতলায় (Dharmatala) শেষ হয় মিছিল। অন্যদিকে কলেজ স্কোয়ারে থেকে আরও একটি মিছিলের ডাক দিয়েছিল বিজেপির সংখ্যালঘু মোর্চা। তবে পুলিশের তৎপরতায় কোনও অশান্তির খবর পাওয়া যায়নি। শান্তিপূর্ণভাবেই গোটা বিষয়টি পুলিশ কড়া হাতে সামলান। তবে এদিন মিছিলের কোনও অনুমতি দেয়নি কলকাতা পুলিশ। তাদের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল প্রজাতন্ত্র দিবস ও সরস্বতী পুজোর জন্য এই মুহূর্তে কলকাতায় কোনও মিছিলের অনুমতি দেওয়া যাবে না। কিন্তু, সে বিষয়ে কান না দিয়ে মিছিল করে আইএসএফ।

তবে কলকাতা যাতে কোনওভাবেই স্তব্ধ না হয়ে যায় সেদিকে কড়া নজর ছিল প্রশাসনের। মিছিল নিয়ে ধর্মতলা এলাকায় প্রস্তুত ছিল পুলিশ। কলকাতা পুলিশের তরফে রাজপথে ব্যারিকেড করে দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরাও।

 

 

Previous articleভারত-পাকিস্তান পরমাণু যুদ্ধের প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল ২০১৯-এ, দাবি মার্কিন বিদেশ সচিবের