নিয়োগ দু*র্নীতির টাকা খাটছে ওয়েব সিরিজে, ইডির হাতে চাঞ্চল্যকর তথ্য!

নিয়োগ দু*র্নীতি কাণ্ডের তদন্তে উঠে আসছে, যে টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, তার চাইতে অনেক বেশি টাকা বাজার থেকে তোলা হয়েছে। এই টাকা বিভিন্ন জায়গায় আগেই সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

এসএসসি-সহ (SSC) শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির (SSC Recruitment Scam) তদন্তে উঠে এলো চাঞ্চল্যকর তথ্য। নিয়োগ দু*র্নীতির বিপুল টাকা খাটছে ওয়েব সিরিজ(Web Series) তৈরিতে। দু*র্নীতির টাকায় তৈরি হওয়া বাংলায় তৈরি ওই ওয়েব সিরিজ ওটিটি(OTT) প্ল্যাটফর্মে মুক্তিও পেয়েছে। হিন্দিতে আরও একটি ওয়েব সিরিজ তৈরির জন্য বিপুল অঙ্কের নগদ টাকা বিনিয়োগের চেষ্টা চলছে। এই সব তথ্য সম্প্রতি তাঁদের হাতে এসেছে বলে দাবি ইডি(ED) তদন্তকারীদের।

অভিযোগ, অযোগ্য প্রার্থীদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে ঘুরপথে মেধা তালিকায় জায়গা করিয়ে দেওয়ার জন্য প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে বিপুল পরিমাণ নগদ জমা পড়েছিল। সেই টাকাই পার্থবাবুর ঘনিষ্ঠদের মাধ্যমে ঢালা হয় ওয়েব সিরিজে। এক্ষেত্রে “মাধ্যম” হিসেবে করা কাজ করেছেন, তাও চিহ্নিত করে ফেলেছেন তদন্তকারীরা।

নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডের তদন্তে উঠে আসছে, যে টাকা বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, তার চাইতে অনেক বেশি টাকা বাজার থেকে তোলা হয়েছে। এই টাকা বিভিন্ন জায়গায় আগেই সরিয়ে ফেলা হয়েছে। দুর্নীতির টাকার একটা বড় অংশ বিনিয়োগ করা হয়েছে রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়। কেনা হয়েছে জমি-বাড়ি। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েকজন রিয়েল এস্টেট ব্যবসায়ীর কাছে এই টাকা লুকনো রয়েছে বলে খবর। ইডি অফিসাররা জানতে পারছেন, প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী গ্রেফতার হওয়ার পর লুকনো টাকা “হ্যান্ডেল” করছেন চারজন। যাঁরা পার্থবাবুর টিম মেম্বার হিসেবে পরিচিত।

ওই সমস্ত ব্যক্তিদের ফোন কলের রেকর্ডস ও বিভিন্ন সূত্র থেকে তদন্তকারীরা জেনেছেন, কোটি কোটি টাকা এই চারজন এক ব্যবসায়ীর কাছে পাঠিয়েছেন। এই ব্যবসায়ীর ছেলে আবার বিভিন্ন ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেন। দু’ভাবে এই টাকা বিনিয়োগ করা হয়েছে। ওই ব্যবসায়ী বিগত তিন–চার মাসে দফায় দফায় ৩০ থেকে ৪০ কোটি টাকা নিয়ে গিয়েছেন উত্তরবঙ্গে। তাঁর পরিচিত ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে ডুয়ার্স-সহ উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন হোটেল, রিসর্ট কারবারে এই টাকা ঢালা হয়েছে বলে অভিযোগ।

Previous articleবয়স ৯০ পেরিয়েছে, বীরভূমের দিদির দূতের কাছে বৃদ্ধ নিজের পরিচয় দিতেই অবাক সকলে