মহামারির ধাক্কায় এবার আইপিএলে ক্রিকেটারদের স্ত্রী-বান্ধবীর উপস্থিতি নিয়ে ধোঁয়াশা

করোনা ধাক্কায় ভারতের পরিবর্তে আমিরশাহীতে হবে এবারের আইপিএল। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আইপিএল শুরু হবে। এই পরিস্থিতিতে কোভিড-১৯ ভাইরাসেএবার আইপিএলে ক্রিকেটাররা স্ত্রী-বান্ধবীদের নিয়ে যেতে পারবেন কিনা সেই প্রশ্ন উঠে গেল!
সিদ্ধান্ত ফ্র্যাঞ্চাইজিদের উপরই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ।ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না।
সাধারণত অন্যবার ক্রিকেটারদের পরিবারের সদস্যরা আইপিএল দেখতে আসেন। স্ত্রী-বান্ধবীরা একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য ক্রিকেটারদের সঙ্গে থাকেন। কিন্তু এবারে বিশ্বজুড়ে কোভিড পরিস্থিতিতে আইপিএল আয়োজন নিয়ে অনেক চাপ রয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে প্রবেশের আগে সমস্ত ক্রিকেটারের কোভিড-১৯ টেস্ট নেগেটিভ হতে হবে। এমনকি, আইপিএল শুরুর আগে দুই সপ্তাহে চার বার ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা হবে বলে জানানো হয়েছে । এবং প্রত্যেক ক্রিকেটারকে থাকতে হবে বোর্ডের কঠোর নিয়মবিধি মেনে। কিন্তু ক্রিকেটারদের সঙ্গে স্ত্রী বা পরিবার থাকবে কি না, তা নিয়ে ভাবনাচিন্তা করতে চাইছে না বোর্ড।
বোর্ড এই মুহূর্তে নিরাপত্তার বিষয়ে সবচেয়ে গুরুত্ব দিচ্ছে। ক্রিকেটারদের পরিবারকে আমিরশাহী নিয়ে গেলে, স্ত্রী-সন্তান বা বান্ধবীরা সম্পূর্ণ গৃহবন্দি থাকবেন তার নিশ্চয়তা নেই। সেই সঙ্গে প্রতিজনকে জৈব সুরক্ষা বলয়ের অধীনে রাখতে হবে। স্ত্রী-বান্ধবীদের গতিবিধিও নিয়ন্ত্রণে রাখার ব্যবস্থা করতে হবে। সেই কারণেই বোর্ড এবছর যত কম সংখ্যক লোক নিয়ে আমিরশাহি যেতে চাইছে।
এক বোর্ডকর্তা জানিয়েছেন , বায়ো-বাবলে এক বার প্রবেশ করলে কেউই তা ভাঙতে পারবেন না। স্ত্রী বা পরিবারের অন্যরা ক্রিকেটারদের সঙ্গে সফর করবেন কি না, সেই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না বিসিসিআই। এটা ছেড়ে দেওয়া হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের উপর। কেউ সেই প্রোটোকল ভাঙতে পারবে না। এমনকি, টিম বাসের ড্রাইভাররা পর্যন্ত বায়ো-বাবল ভাঙতে পারবে না।
সব মিলিয়ে পরিস্থিতি যা, তাতে পরিবার ছাড়াই এবারের আইপিএল খেলতে হতে পারে ক্রিকেটারদের । এবং সেই সম্ভাবনাই প্রবল।