EAST BENGAL DAY: ইস্টবেঙ্গলের জার্সির রং কেন লাল-হলুদ? জেনে নিন ইতিহাস

খেলার মাঠের একটা অন্যায়৷ সেই অন্যায়ের প্রতিবাদ৷ এবং সেই প্রতিবাদ থেকে শতবর্ষ আগে কলকাতার বুকে জন্ম হয়েছিল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের। অনেক লড়াই-প্রতিবাদের পর ক্লাব তো তৈরি হল, ঠিক করে ফেলা হলো তার নামও। কিন্তু ফুটবলারদের জার্সির রং কী হবে?

ইস্টবেঙ্গলের জার্সির রং নিয়েও একটা মজার ইতিহাস আছে৷ প্রতিষ্ঠাতা সদস্যরা সকলেই নিজেদের পছন্দের রংকে জার্সির গায়ে লাগাতে চাইলেন৷ কিন্তু সেটা কীভাবে সম্ভব৷ এনিয়ে চরম মতবিরোধ দেখা দিলো রাজা সুরেশ চন্দ্র চৌধুরি, মন্মথনাথ রায়, তড়িৎভূষণ রায়, অরবিন্দ ঘোষ, রমেশ সেনদের মধ্যে৷ দীর্ঘ সময় পার হয়ে গেলেও জার্সির রং নিয়ে এঁরা কেউ সহমতে আসছিলেন না৷ সকলেই নিজের মতো করে চাইছিলেন, জার্সির রং এমন হবে যা সকলের চোখ ধাঁধিয়ে দেবে।

এমতবস্থায় একদিন তাঁরা বিকেলে ধর্মতলা চত্বরে ঘুরতে যান৷ সেখানে তাঁদের চোখ পড়ে যায় একটি গার্মেন্ট শো-রুমের দিকে৷ Laidlaw & Co. Departmental Store-নামক চৌরঙ্গির এই বিখ্যাত শো-রুমের বাইরে থেকে তাঁরা দেখেন ভিতরে লাল-হলুদ রং-এর একটি শার্ট ঝুলছে৷
তৎকালীন ব্রিটিশদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিল বিশাল এই দোকান। সেই দোকানে ঝোলানো শার্টের রং প্রত্যেকের পছন্দ হয়৷ সেখানেই দাঁড়িয়ে তাঁরা সহমত পোষণের মধ্য দিয়ে সিদ্ধান্ত নেন ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের জার্সির রং হবে লাল-হলুদ৷

পরবর্তী সময়ে এই দুই রং ক্লাবের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে পড়ে৷ সদস্য-সমর্থকদের আবেগের সঙ্গে মিশে যায় লাল-হলুদ৷ এখন আর শুধু জার্সির রং নয়, দেশ-বিদেশের অগুনিত ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের স্বপ্নের রং লাল-হলুদ৷