শিল্প প্রসারে বড় সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের, ২ থেকে ১০ কোটি টাকা ইনসেনটিভ

বাংলায় শিল্পের প্রসারে বড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। ব্যক্তিগত উদ্যোগে শিল্পতালুক তৈরির জন্য যে কোনও শিল্প সংস্থা বা শিল্পপতিকে ২ থেকে ১০ কোটি টাকা ইনসেনটিভ দেওয়া হবে। তৈরি হবে 100 টি নতুন এমএসএমই পার্ক। নবান্নে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, বৈঠকির পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁকে এই সিদ্ধান্তের কথা সাংবাদিকদের জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন। ক্ষুদ্র কুটির শিল্পে বিনিয়োগে উৎসাহ দিতে ২০১৪ সালে ইনসেনটিভ পলিসি গ্রহণ করে সরকার। কিন্তু ২০১৯-এর সেপ্টেম্বরে তার মেয়াদ শেষ হয়। এবার কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরি করতে সেই ইনসেনটিভ পলিসির ৫ বছরের জন্য পুনর্নবীকরণ করা হল বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রসচিব।
বুধবার, নবান্ন সভাঘরে রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক হয়। সেখানেই ১০০টি ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক গড়ার সিদ্ধান্ত নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান,

• এবার থেকে রাজ্যে শিল্পতালুক তৈরির জন্য যে কোনও শিল্প সংস্থা বা শিল্পপতিকে উদ্যোগ নিলে রাজ্য সরকার আর্থিক ভাবে সাহায্য করবে।

• ওই শিল্পপতি বা সংস্থাকে সরকারের তরফে ২ কোটি থেকে ১০ কোটি টাকা পর্যন্ত জমির মাপের অনুপাতে ইনসেনটিভ দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন- ‘কমলা আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হলে খুব লজ্জার’, হ্যারিসকে তীব্র কটূক্তি ট্রাম্পের

• এই সব শিল্পপ্রকল্পে কাজের সুবিধার্থে রাজ্য সরকার শিল্প তালুকের মধ্যেই বিনামূল্যে বিদ্যুতের সাব স্টেশন তৈরি করে দেবে। তবে সেই সাব স্টেশন তৈরির জমি দিতে হবে সেই সংস্থাকেই।

• যাতায়াতের সুবিধার্থে মূল রাস্তার সঙ্গে সংযোগের জন্য দেড় কিলোমিটার পর্যন্ত রাস্তাও করে দেবে সরকার।

• জমি ক্রয়ের সময়ে স্ট্যাম্প ডিউটি লাগলেও পরে রাজ্য সরকার তা ফিরিয়ে দেবে।

• শিল্প তালুকের মধ্যে কমন সিইটিপি তৈরি করলে ৫ লক্ষ টাকা অতিরিক্ত ইনসেনটিভ দেওয়া হবে।
নীতি অনুযায়ী, ২০ থেকে ৩৯ একর পর্যন্ত জমির মধ্যে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক তৈরি করলে দু’কোটি টাকা , ৪০ থেকে ৫৯ একর জমির জন্য ৪ কোটি টাকা , ৭৯ একর জমিতে শিল্পতালুকের জন্য ৬ কোটি টাকা , ৮০ থেকে ৯৯ একর জমিতে যারা শিল্প তালুকে ৮ কোটি টাকা এবং ১০০ একরের বেশি জমিতে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক হলে ১০ কোটি টাকা ইনসেনটিভ দেওয়া হবে। এতে, রাজ্যে শিল্প স্থাপনে আগ্রহ এবং কর্ম সংস্থান বাড়বে বলে আশা।

আরও পড়ুন- নদিয়ায় ব্যাপক ভাঙন বিজেপিতে, একুশের আগে শক্তি বাড়ালো তৃণমূল