হাথরাসকাণ্ড: ”আমার নির্দেশেই পুলিশ রাতের অন্ধকারে দেহ পুড়িয়েছে”, দায় স্বীকার জেলাশাসকের

যোগী রাজ্য উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে ১৯ বছরের দলিতকন্যার ধর্ষণ ও মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে তোলপাড় দেশ। পরিবারের অভিযোগ, মৃতদেহ তাঁদের হাতে তুলে না দিয়ে প্রমাণ লোপাটের জন্য রাতের অন্ধকারে লুকিয়ে রাতের অন্ধকারে পুড়িয়ে ফেলেছিল পুলিস-প্রশাসন। যা নিয়ে চরম বিতর্ক তৈরি হয়েছে। অভিযোগের তির ছিল জেলা শাসকের দিকে।

আরও পড়ুন- দশভুজার আগমন লগ্নে মুখ্যমন্ত্রীর কথা ও সুরে প্রকাশিত নতুন গানের সংকলন ‘সৃষ্টি’

এবার এলাহাবাদ হাইকোর্টে রাতের অন্ধকারে নির্যাতিতার দেহ পোড়ানোর সম্পূর্ণ দায় নিলেন হাথরাসের জেলাশাসক পরভিন কুমার লস্কর। নিজের পক্ষে যুক্তি খাড়া করে আদালতকে তিনি জানিয়েছেন, প্রশাসনের কাছে গাপন সূ্ত্রে খবর ছিল, কেউ বা কারা এই ঘটনাকে রাজনৈতিক রূপ দেওয়ার চেষ্টা করছিল। তা ছাড়া জাতপাতের বৈষম্য নিয়ে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ানোরও আশঙ্কা ছিল। তাই তিনি তড়িঘড়ি দেহ পুড়িয়ে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

জেলাশাসক আরও জানান, ময়নাতদন্তের পর নির্যাতিতা তরুণীর দেহে পচন ধরেছিল। তাই বেশিক্ষণ দেরি না করে তিনি পুলিশকে দিয়ে সৎকারের ব্যবস্থা করেন।

এদিকে, জেলাশাসকের যুক্তিকে খণ্ডন করে নির্যাতিতার পরিবারের আইনজীবী সীমা কুশওয়াহা পাল্টা প্রশ্ন করেছেন, যাই হোক না কেন, কোন যুক্তিতে নির্যাতিতার দেহ শেষবারের জন্য তাঁর বাড়ির লোককে দেখার সুযোগ দেওয়া হলো না? তাহলে কি পুলিশ কিছু লুকোনোর চেষ্টা করছে?