দক্ষিণ দিনাজপুরের তিন বিতর্কিত নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল

কঠোর তৃণমূল৷ ভোটের মুখে কোনও বিতর্কিত নেতা-কর্মীকেই প্রশ্রয় দিতে রাজি নয় দল৷

দক্ষিণ দিনাজপুরের ৩ বিতর্কিত নেতাকে দল থেকে বহিষ্কার করল তৃণমূল। দলের প্রাক্তন দুই কার্যকরী সভাপতি সোনা পাল ও দেবাশিস মজুমদার এবং জেলা নেতা সুনির্মলজ্যোতি বিশ্বাসকে শনিবার দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে জানালেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি গৌতম দাস। এ প্রসঙ্গে সোনা পাল প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘‘আমাদের ছাড়া জেলায় তৃণমূল চলবে না। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে দল করি। যারা বহিষ্কার করেছে, তাঁরা কারা ? এদের আমি মানি না। বিষয়টা রাজ্য নেতৃত্বকে জানাব।’’ দেবাশিস বলেছেন, “এই বহিষ্কার উদ্দেশ্যপ্রণোদিত৷ যাঁরা জেলায় দল চালাচ্ছেন তাঁরা খাতায় কলমে আজও তৃণমূলও নয়। শো-কজের উত্তরে আমি জানিয়েছি, এঁদের নেতৃত্বে আমি দল করব না।’’ ওদিকে কুশমণ্ডির নেতা সুনির্মলজ্যোতি বিশ্বাসের দাবি, ‘‘জেলা সভাপতি গৌতম দাসের নামে মানহানির মামলা করব।’’

প্রসঙ্গত, অর্পিতা ঘোষ যখন জেলা সভাপতি ছিলেন, তখনই সোনা ও দেবাকে কার্যকরী সভাপতি করা হয়েছিল। জেলা পরিষদের মেন্টরও ছিলেন হরিরামপুরের দাপুটে নেতা সোনা। মাসখানেক আগে দল বিরোধী কাজ ও দুর্নীতির অভিযোগে এদের শো কজ করা হয়। সুনির্মলের স্ত্রী সুনন্দা বিশ্বাস আবার কুশমণ্ডি পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি। সোনা পালের মেয়ে অলিভিয়া পাল মহিলা তৃণমূলের নেত্রী। এদের প্রসঙ্গে জেলা সভাপতি গৌতম দাস বলেছেন, ‘‘ওঁদের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগই নেই। তাঁরা যেমন আছেন তেমনই থাকবেন।’’

আরও পড়ুন : মুখ্যমন্ত্রীকে ‘সম্মানের পাগড়ি’ উপহার দিতে চান বলবিন্দর-পত্নী করমজিৎ