‘মমতার পদ চাইলে চিরে দেব, বাড়িতে ঢুকে মাইক বাজাব’, শুভেন্দুকে হুঁশিয়ারি সৌগতর

“দুধ মাঙ্গো তো ক্ষীর দেঙ্গে, কাশ্মীর মাঙ্গো তো চির দেঙ্গে”৷

এবার সুপারহিট এই ফিল্মি ডায়লগ আউড়েই শুভেন্দু অধিকারীকে ( Suvendu Adhikary)
তীব্র আক্রমণ করলেন প্রাক্তণ অধ্যাপক সৌগত রায় (Sougata Roy)৷

ঠিক এরপরই শুভেন্দুকে হুমকি দিয়েই সৌগত বলেন, “শুভেন্দুর বাড়ির দরজায় মাইক লাগিয়ে একদফা বুঝিয়ে দিয়ে এসেছি, এবার বাড়ির ভিতর ঢুকে মাইক বাজাব।”

পানিহাটির এক দলীয় সভায় সরাসরি নাম করে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া শুভেন্দুকে এভাবেই হুঁশিয়ারি দিয়ে সুবক্তা হিসেবে পরিচিত সৌগত রায় বলেছেন, “একটা সিনেমা দেখেছিলাম ‘মিশন কাশ্মীর’ ৷ তার একটা ডায়লগ ছিলো, দুধ মাঙ্গো তো ক্ষীর দেঙ্গে, কাশ্মীর মাঙ্গো তো চির দেঙ্গে ৷ শুভেন্দুকেও বলি, মমতার পদ চাও তো চির দেঙ্গে ৷

দলের সঙ্গে যখন শুভেন্দু অধিকারীর দূরত্ব বাড়ছিলো, তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এই সৌগত রায়কেই মধ্যস্থতার দায়িত্ব দিয়েছিলেন ৷ শুভেন্দুর ক্ষোভ প্রশমিত করে দলে রাখার জন্য তাঁর সঙ্গে একাধিকবার বৈঠকে বসেছিলেন সৌগত রায় ৷ কিন্তু সব প্রচেষ্টাই ব্যর্থ হয় এবং শুভেন্দু যোগ দেন বিজেপিতেই৷ এদিন সৌগত রায় বলেন, “দলে রাখার জন্য শুভেন্দুর হাতে পায়ে ধরেছিলাম ৷ বলেছিলাম ২০০৬ থেকে আছিস আমাদের সঙ্গে, এখন যাস না বাবা ৷ কিন্তু কোনও কথাই ও শোনেনি”৷

এদিন সৌগত রায়ের নিশানায় ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও৷ তিনি বলেন, “লম্বা দাড়ি রাখলেই কেউ রবীন্দ্রনাথ হয় না ৷ তাহলে তো রামছাগলও রবীন্দ্রনাথ হত ৷ রবীন্দ্রনাথ বললেই হয় না, বাংলা ও বাঙালির মানসিকতাও বুঝতে হয় ৷”

আরও পড়ুন- ‘দুষ্কৃতী এনে বাংলায় ঝামেলা পাকাচ্ছে বিজেপি’, সুনীল মণ্ডল ইস্যুতে বিজেপিকে খোঁচা কাকলির