বিধানসভা ভোটের প্রস্তুতি পর্বেই উত্তরবঙ্গে শুভেন্দুকে ব্যাকফুটে ফেললেন অভিষেক

কিশোর সাহা: বিজেপি প্রস্তুতি নিয়েছিল উত্তরবঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীকে (Shubhendu Adhikari) দিয়ে দক্ষিণ দিনাজপুরের (Dakhhin Dinajpur) গঙ্গারামপুরে সভা করে শুরু করবে ভোটের প্রচার। সেই মত দিনও প্রায় ঠিক হয়েছিল ৭ জানুয়ারি (January)।

কিন্তু তার আগেই ঠিক ৭ জানুয়ারিতেই দক্ষিণ দিনাজপুরের রাজনীতির ভরকেন্দ্র গঙ্গারামপুরে জনসভা করতে রওনা দিলেন তৃণমূলের যুব সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি তথা ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Benarjee)। সঙ্গে ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor)। বৃহস্পতিবার, বিকেল তিনটেয় গঙ্গারামপুরের স্টেডিয়ামে ওই সভা। গত লোকসভা ভোটে কালুরঘাট আসন বিজেপি দখলের পরে এটাই তৃণমূল কংগ্রেসের প্রথম বড় সভা। যে সভা থেকে আগামী ভোটে ঘুরে দাঁড়িয়ে জেলার সব আসন ফের দখলের জন্য অভিষেক কীভাবে নেতা কর্মীদের মনোবল বাড়ান তা নিয়েই কৌতুহল তুঙ্গে। তৃণমূল সূত্র বলছে, যেভাবে দার্জিলিং, তরাই, ডুয়ার্সের সংগঠন চাঙ্গা করার চেষ্টা করেছেন, তেমনই ভোকাল টনিক দেবেন।

আরও পড়ুন:সিডনিতে পুকোভস্কি-লাবুসানের ব্যাটে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া

উত্তরবঙ্গের রাজনীতিতে দক্ষিণ দিনাজপুরের চিরদিনই গুরুত্বপূর্ণ স্থানে রয়েছে। সেই জেলার রাজনৈতিক ভরকেন্দ্র একদা সিপিএমের নারায়ণ বিশ্বাসকে (Narayan Biswas) কেন্দ্র করে আবর্তিত হত। তিনি গংগারামপুরেই বাসিন্দা। তৃণমূল জমানায় গঙ্গারামপুরের বিপ্লব মিত্রকে (Biplab Mitra) কেন্দ্র করে সেই আবর্তন চলছে। কিন্তু উপদলীয় রেষারেষিতে দীর্ণ হয়ে পড়ে তৃণমূল। ফলশ্রুতিতে দলে ভাঙনও দেখা দেয়। তা কিছুটা সামলে নেন অভিষেক ও পিকে জুটি। তারপরে গঙ্গারামপুরে সভা করে তৃণমূল ভাঙাতে কোমর বেঁধেছে বিজেপি বলে খবর। সে দিক থেকে আগেভাগে গঙ্গারামপুরে জনসভা করে দলকে এক রাখতে অভিষেকের সভা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। অভিষেক-পিকে উত্তরবঙ্গের সফরের চতুর্থ দিন। গঙ্গারামপুরে সভার পরে ফিরবেন শিলিগুড়ি। শুক্রবার (Friday) কলকাতা ফেরার কথা।

Advt