গ্রাম ছাড়ার ফতোয়া দিল সন্ত্রাসবাদীরা, আতঙ্ক মণিপুরে

আচমকাই গ্রাম ছেড়ে চলে যাওয়ার হুমকি দেয় সন্ত্রাসবাদীরা। ভয়ে তস্ত্র হয়ে পড়ে গ্রামবাসীরাও। সন্ত্রাসবাদদের রুখতে তাই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। তড়িঘড়ি মণিপুরের (Manipur) কাংপোকপি জেলার খেংজাং গ্রামে মোতায়েন করা হয় প্রচুর সংখ্যক সেনা জওয়ান। এই প্রসঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীও আশ্বাস দিয়েছেন, ওই গ্রামের বাসিন্দাদের প্রাণ এবং সম্পত্তি উভয়েরই কোনও ক্ষতি হতে দেবে না মণিপুর সরকার। আর তাই গোটা গ্রামে সেনা জওয়ানদের মোতায়েন করা হয়েছে।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি খেংজাং গ্রামে আচমকাই হামলা চালায় গোটা কয়েক দুষ্কৃতী। এলোপাথাড়ি গুলি ছোঁড়ার সঙ্গে সঙ্গে বোমাবাজিও চালায় তারা। সেইসঙ্গে চলেভাঙচুর। বাড়ির দরজা থেকে শুরু করে কারও কারও আসবাবপত্র ভেঙে ফেলে ওই সন্ত্রাসবাদীরা। এরপর ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে গ্রামবাসীদের ওই গ্রাম ছেড়ে চলে যেতে বলে। ভয় পয়ে ইতমধ্যেই গ্রাম ছেড়ে চলে যায় বেশ কয়েকটি পরিবার। এইনিয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হন গ্রামবাসীরা। অভিযোগ পেয়েই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। তড়িঘড়ি উপরমহলে বিষয়টি জানানো হয়। এরপরই নিরাপত্তার বলয়ে মুড়ে ফেলা হয় গোটা গ্রাম। মোতায়েন করা হয় কয়েকশো সেনা জওয়ান এবং কমান্ডো।

এবিষয়ে মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন সিং জানান, কোনও গ্রামবাসীর ক্ষতি হতে দেওয়া হবে না। তাই উপরমহলের নজরে এনেছেন গোটা বিষয়টি। গোটা গ্রামে কমান্ডো বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। গোটা বিষয়টির উপর নজর রাখছে রাজ্য সরকার। ঘটনার তদন্তেরও নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি জানিয়েছেন, ঘটনায় যারাই জড়িত থাকুক, তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Advt