তারকাদের পাশে পাবেন না: বেহালায় পায়েল-শ্রাবন্তীর নাম না করে কটাক্ষ মমতার

বেহালা দুটি কেন্দ্র পূর্ব এবং পশ্চিমে এবার টালিগঞ্জের দুই তারকাকে প্রার্থী করেছে গেরুয়া শিবির। বিধানসভা নির্বাচনের আগেই বিজেপিতে (Bjp) যোগ দিয়েছিলেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় (Shrabanti CHatterjee) ও পায়েল সরকার (Payel Sarkar)। তাদেরকেই বেহালা পূর্ব-পশ্চিমের দায়িত্ব দিয়েছে পদ্ম শিবির। শেষবেলার প্রচারে বেহালা (Behala) পূর্ব এবং পশ্চিমে দুই দলীয় প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায় (Ratna Chattopadhyay) ও পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের (Partha Chattopadhyay)হয়ে প্রচার করতে গিয়ে বিজেপি-র দুই তারকা প্রার্থীকে তীব্র আক্রমণ করেন তৃণমূল (Tmc) নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bandapahyay) ৷ তিনি অভিযোগ করেন, জিতলে এই তারকাদের পাশে পাবেন না স্থানীয় বাসিন্দারা৷ বেহালা পূর্বে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী করেছে পায়েল সরকারকে ৷ আর বেহালা পশ্চিমে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে পদ্ম শিবিরের হয়ে লড়ছেন শ্রাবন্তী।

বেহালা পূর্ব এবং পশ্চিমের দুই দলীয় প্রার্থীর সমর্থনে জনসভা করেন মমতা৷ সেই সভা থেকেই নাম না করে বিজেপির দুই তারকা প্রার্থীকে কটাক্ষ করেন তৃণমূল নেত্রী৷ তিনি বলেন, “পার্থদা আপনার ঘরের ছেলে, সবসময় পড়ে থাকে৷ আর কোথা থেকে দুটোকে জুটিয়ে নিয়ে এসেছে, কোনও দিনও পাবেন? রত্না কাজের মেয়ে”।

নয়ের দশকে যখন মমতা মার খেয়েছিলেন সেই সময়ের কথা উল্লেখ করে বলেন, “রত্না তখন রাস্তায় দাঁড়িয়ে লড়াই করেছিল”৷ তিনি বলেন, বেহালার মানুষ যেন তাঁকে না ফেরায়, তাহলে দুই- তৃতীয়াংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা কী করে পাবেন তিনি?

বেহালার জন্য তিনি কী কী করেছেন, এ দিন তারও খতিয়ান দেন মুখ্যমন্ত্রী৷ জোকা- বিবাদী বাগ মেট্রো প্রকল্প থেকে শুরু করে বেহালার জলনিকাশি সব বিষয়ের কাজের খতিয়ান দেন মমতা। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গে টেনে না আনলেও তৃণমূল নেত্রী বলেন, “গদ্দার, মীরজাফররা চলে গেছে আমি খুশি, একটা গেলে আমি একশোটা তৈরি করে নেব”৷

আরও পড়ুন:প্রথম ম‍্যাচ থেকেই জয় চাইছেন কোহলি, দল নিয়ে আশাবাদী বিরাট

বেহালা পূর্বে প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছে ছিল তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যাওয়া কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। কিন্তু প্রার্থী তালিকা প্রকাশের পর দেখা যায় বেহালা পূর্বে অভিনেত্রী পায়েল সরকারকে প্রার্থী করেছে বিজেপি। সূত্রের খবর, তৃণমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিপরীতে শোভনকে প্রার্থী করে পারিবারিক কোন্দলকে ভোটের বাজারে আনতে চায়নি বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। প্রার্থী হতে না পেরে বিজেপি ছেড়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। সঙ্গে তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ও। বেহালা পূর্বে রত্না চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে পায়েল ও পশ্চিমে হেভিওয়েট প্রার্থীর পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর বিরুদ্ধে শ্রাবন্তী ইভিএমে কতটা ছাপ ফেলতে পারেন, তার জন্য অপেক্ষা করতে হবে দোসরা মে পর্যন্ত।

Advt