ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ তুলে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব দিলীপ

বাংলায় বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা সহ তৃতীয়বারের জন্য ফের একবার নবান্নে বসতে চলেছে তৃণমূল সরকার(TMC government)। তবে ২ মে নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর সোমবার রাজ্যজুড়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ তুলে সরব হল বিজেপি। এদিন বিজেপির(BJP) পার্টি অফিসে সাংবাদিক বৈঠক করে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে ওঠেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh)। জানিয়ে দেন “গোটা রাজ্য জুড়ে আমাদের একাধিক কর্মী খুন হয়েছেন, হাজার হাজার বাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে, বহু কার্যকর্তা এলাকাছাড়া হয়েছেন। গোটা পরিস্থিতি ভয়াবহ। আমরা বিষয়টি নিয়ে রাজ্যের মুখ্যসচিব নির্বাচন কমিশন এবং দেশের প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দেবো।”

এদিন সংবাদিক বৈঠক করে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার ২৪ ঘণ্টাও কাটেনি আমাদের ৬জন কর্মীকে খুন করা হয়েছে, হাজার হাজার বাড়ি ভাঙা হয়েছে, প্রতিটি বিধানসভা থেকে এই ধরনের খবর আসছে। যারা ভেবেছিলেন জিততে পারবো না অথচ কোনভাবে জিতে গেছেন তারা এখন তাঁদের আনন্দের বহিঃপ্রকাশ করছে অন্যকে আঘাত করে। এটা হতে পারে না। দেশে ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির মাঝে সময় এই ধরনের ঘটনা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক। ” এর পাশাপাশি দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, “আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই ঘটনা যাতে অবিলম্বে বন্ধ হয় তার জন্য দেশের প্রধানমন্ত্রী মুখ্যসচিব নির্বাচন কমিশন সমস্ত জায়গায় আবেদন জানাবো।”

আরও পড়ুন:সিএসকের তিন সদস্য করোনা পজিটিভ, মাঝপথে বাতিল হতে পারে আইপিএল!

পাশাপাশি সাংবাদিক বৈঠকে নির্বাচন প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ জানান, “মানুষ আমাদের রাজ্যে বিরোধী হিসেবে দেখতে চেয়েছেন জনতার রায় আমরা মাথা পেতে নিচ্ছি। বিরোধী দল হিসেবে অবশ্যই সর্বশক্তি দিয়ে আমরা আমাদের ভূমিকা পালন করব। কয়দিনের সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন জয়প্রকাশ মজুমদার, সায়ন্তন বসুর মত নেতৃত্বরা।

Advt