ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগে ফের টুইট রাজ্যপালের, কড়া জবাব দিলেন কুণালও

রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসার অভিযোগ তুলে ফের টুইট করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রবিবার একটি ভিডিও শেয়ার করে রাজ্যপাল লিখেছেন,  ‘ভোট পরবর্তী হিংসা মানবতাকে লজ্জা দেবে। পুলিশ কিছুই করছে না। যা হচ্ছে সেটা পুরোটাই বিরোধীদের শাস্তি দেওয়ার জন্য।’ তার পরেই এই ইস্যুতে সোমবার আবার রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীকে ডেকে পাঠিয়েছেন রাজ্যপাল। এদিকে রাজ্যপালের টুইট নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ। তিনি রাজ্যপালকে বিজেপির দালাল বলে তীব্র কটাক্ষ করেন।

রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে রবিবার একাধিক টুইট করেন রাজ্যপাল। সেখানে তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইটার হ্যান্ডলকে ট্যাগ করেন। সেই সঙ্গে কোনওটিতে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশের টুইটার হ্যান্ডলকে ট্যাগ করে। তাঁর অভিযোগ রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভেঙে পড়েছে।

আরও পড়ুন-বিধানসভায় সরকারের দমবন্ধ করে দেব, মন্তব্য দিলীপের, পাল্টা জবাব তৃণমূলের

রাজ্যপালের এই টুইট নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কুণাল ঘোষ রাজ্যপালের এই সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলেন, উনি সাংবিধানিক পদের মর্যাদা লঙ্ঘন করে রাজভবনকে দিল্লির শাসক দল বিজেপির অ্যাজেন্ডা পূরণে নেমেছেন। উনি রাজ্যপাল হয়ে ভোটের আগে রাজ্যে পরিবর্তনের ডাক দিয়ে নিজের সাংবিধানিক পদের  অবমাননা করেছেন। ভোটের ফলাফলে রাজ্যপাল হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন বলেও কাটক্ষ করতে ছাড়েননি কুণাল ঘোষ। রাজ্যপালকে তিনি বিজেপির দালাল বলেও মন্তব্য করেন। কুণালের অভিযোগ, রাজ্যপাল তাঁর পদের মর্যাদা ভুলে উস্কানি দিয়ে চলেছেন।

তবে তৃণমূলের এমন কড়া সমালোচনার মুখে আগেও পড়েছেন রাজ্যপাল। কিন্তু তাতে যে তাঁর বিশেষ কিছু এসে যায় না তা তিনি বার বার বুঝিয়ে দিয়েছেন। তাই কুণাল ঘোষ বা তৃণমূলের এমন তীব্র সমালোচনার মুখে পড়ে তিনি অবস্থান বদল করবেন বলে মনে করেন না ওয়াকিবহাল মহল।

Advt