ফের চাঁদে মানুষ পাঠাবে নাসা, গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ভারতীয় বংশোদ্ভূত সুবাসিনী

৫০ বছর পর ফের চাঁদের(Moon) মাটিতে মানুষ পাঠানোর পরিকল্পনা শুরু করেছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা(NASA)। জটিল এই অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পেলেন ভারতীয় বংশোদ্ভুত মহিলা ইঞ্জিনিয়ার সুবাসিনী আইয়ার(subasini Iyer)। বিগত দুই বছর ধরে নাসার এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ওই মহিলা। তাঁর জন্ম ভারতের কোয়েম্বাটুরে।

সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সুবাসিনী বলেন, “এখন থেকে ৫০ বছর আগে চাঁদের মাটিতে পা রেখে ছিলাম আমরা। তাই ফের একবার চাঁদে মহাকাশচারীদের নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে নাসার তরফে। আরে গুরুত্বপূর্ণ প্রজেক্টের প্রাথমিক স্তর থেকে যেকোনো রকম সাহায্য করা আমাদের দায়িত্ব”।

আরও পড়ুন:খোদ রাজ্যপালের বিরুদ্ধে স্বজনপোষণের অভিযোগ তুললেন সাংসদ মহুয়া মৈত্র

জানা গিয়েছে, নাসার নয়া এই প্রোজেক্টের নাম দেওয়া হয়েছে ‘আর্টেমিস লুনার এক্সপ্লোরেশন’। একেবারে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হচ্ছে এই প্রোজেক্টের জন্য। নাসার তরফে জানা গিয়েছে, স্পেস লঞ্চ সিস্টেম (এসএলসি) ও ওরিয়ন রকেটের মাধ্যমে চাঁদে মহাকাশচারীদের পাঠানো হবে। মোট দুটি মহাকাশযান পাঠানো হবে চাঁদে। আশা করা হচ্ছে এই প্রজেক্টের মাধ্যমে চাঁদের বহু অজানা তথ্য খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে।

নাসা সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রথমে আর্টেমিস ১ মিশনে মহাকাশচারী ছাড়াই স্পেস লঞ্চ সিস্টেম ও ওরিয়নকে মহাকাশে পাঠানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এরপর আর্টেমিস ২ মিশনে মহাকাশচারী নিয়ে এই ২ যানকে পাঠানো হবে মহাকাশে। ২০২৪ সালের মধ্যে আর্টেমিস ৩ মিশনের মাধ্যমে চাঁদে মহাকাশচারী পাঠানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। এই বিশাল প্রজেক্ট এর গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সুবাসিনীকে।
Advt