BJP: রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে পিকে-র টিমের যোগ! অমিতাভর মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক

বিধানসভা ভোটে বিজেপির ভরাডুবির পরে তথাগত রায়ের করা অভিযোগে মান্যতা পেল অমিতাভ চক্রবর্তীর মন্তব্যে।

বিজেপির বর্তমান রাজ্য কমিটি হল ‘বেস্ট টিম’। একথা নাকি বলছে ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের (Prashant Kishor) টিম। আর দলীয় বৈঠকে সে কথা জানিয়েছেন খোদ বিজেপির (Bjp) সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) অমিতাভ চক্রবর্তী (Amitabh Chakraborty)। গত রবিবার বিজেপির ভার্চুয়াল বৈঠকে অমিতাভ দাবি করেন, পিকে-এর সংস্থার এক কর্মী তাঁকে জানিয়েছেন বর্তমানে সংগঠিত বিজেপির কমিটি ‘বেস্ট টিম’। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পরই রাজনৈতিক মহলে বিতর্ক দেখা দিয়েছে। এই বক্তব্যে তিনি ব্যথিত এবং লজ্জিত বলে ফেসবুকে পোস্টে লেখেন বিজেপি নেতা রীতেশ তিওয়ারি (Ritesh Tiwari)।

বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবির পর হারের কারণ হিসেবে বিভিন্ন ব্যাখ্যা সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক পোস্ট করেন বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা তথাগত রায়। সেখানে একটি কারণ হিসেবে তিনি লেখেন, কয়েকজন বিজেপি কর্মীর সঙ্গে তৃণমূলের ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর এবং তাঁর সংস্থার যোগাযোগ রেখেছিলেন। এইবার তাঁর সেই অভিযোগকে মান্যতা দিল অমিতাভ চক্রবর্তীর বিস্ফোরক মন্তব্য। এই খবর শুনে রীতেশ তেওয়ারি নিজের ফেসবুক ওয়ালে লেখেন,
“এটা বিশ্বাস করতে সত্যি কষ্ট হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি @bjp4bengal নেতাদের নেতৃত্বে কাজ ও মান নির্ধারিত হচ্ছে @AITC এর ভাড়া করা নির্বাচন কৌশলী @Prashant টিমের কাছ থেকে এই ধরনের অবক্ষয় এর জন্যে আমি
ভারতীয় জনতা পার্টির সাধারণ কর্মী হিসেবে,আমি ব্যথিত এবং লজ্জিত।”

বিজেপির নতুন রাজ্য কমিটি থেকে বাদ পড়েছেন সায়ন্তন বসু (Sayantan Basu), প্রতাপ বন্দোপাধ্যায়ের মতো নেতারা। রাজ্য কমিটির নিয়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে মতুয়া সম্প্রদায়ের মধ্যেও। অভিমানে বিজেপির হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী শান্তনু ঠাকুর (Shantanu Thakur)-সহ অনেকে। বিজেপি বিধায়ক হিরণও হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছাড়েন। এরপরেই বিজেপি সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের বাড়িতে বৈঠকে করেন সায়ন্তন বসু, জয়প্রকাশ মজুমজদার, রীতেশ তিওয়ারির মতো বিক্ষুব্ধ নেতারা। তাঁদের অভিযোগ, কমিটিতে এমন অনেকে আছেন যাঁদের কোনও জনসংযোগ নেই। অমিতাভ চক্রবর্তীর ইচ্ছাতেই তাঁদের কমিটিতে নেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক মহলের মতে, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ খণ্ডন করতেই অমিতাভ এই দাবি করছেন। বিপক্ষরাও বিজেপির নতুন রাজ্য কমিটিকে বাহবা দিচ্ছে এটাই বিক্ষুব্ধদের সামনে তুলে ধরতে চাইছেন অমিতাভ চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন:বিশ্বব্যাপী মুসলিম বিদ্বেষের মঞ্চ ‘ট্র্যাডস’  এর হদিশ এবার ভারতেও

Previous articleSc EastBengal: শাস্তি কমল না পেরোসিভিচের, আপিল কমিটির বৈঠকে গড় হাজির লাল-হলুদ ম‍্যানেজমেন্ট