রাষ্ট্রীয় ভাষা নিয়ে বিতর্কে বলি তারকা বনাম দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি

"আপনার কথা মতো হিন্দি যদি আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা নাইই হয় তো আপনি আপনাদের মাতৃভাষার সিনেমাগুলিকে হিন্দিতে ডাব করে কেন রিলিজ করান?"

হিন্দী ভারতের জাতীয় ভাষা, এই কথা সবার জানা কিন্তু এই ভাষা নিয়ে সম্প্রতি বিতর্কে জড়িয়েছে বলিউড বনাম টলিউড। শিরোনামে দুই স্টার – অজয় দেবগণ (Ajay Devgan) ও কিচ্চা সুদীপ (Kiccha Sudeep)।

ঠিক কী ঘটেছিল?

সম্প্রতি কিচ্চা সুদীপ মন্তব্য করেন যে, হিন্দি (Hindi) আর আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা (National Language) নেই। সেখানেই বিতর্কের শুরু। জাতীয় ভাষাকে নিয়ে এই কটাক্ষের তীব্র প্রতিবাদ করেন বলিউডের সিংহম অজয় দেবগণ (Ajay Devgan)। হিন্দি হরফে অজয় দেবগণ সুদীপকে লেখেন, “আপনার কথা মতো হিন্দি যদি আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা নাইই হয় তো আপনি আপনাদের মাতৃভাষার সিনেমাগুলিকে হিন্দিতে ডাব করে কেন রিলিজ করান?”

নেট পাড়ায় এখন ভাইরাল অজয় আর সুদীপের কথোপকথন।ট্যুইটার ভাগ হয়ে গেছে দুই দলে। একদল কিচ্চার সমর্থনে, অপর দল তাঁর সমালোচনায় ব্যস্ত। অজয় দেবগন টুইটারে লেখেন,
‘কিচ্চা সুদীপ আমার ভাই, আপনার কথা মতো হিন্দি যদি আমাদের রাষ্ট্রীয় ভাষা নাইই হয় তো আপনি আপনাদের মাতৃভাষার সিনেমাগুলিকে হিন্দিতে ডাব করে কেন রিলিজ করান? হিন্দি আমাদের মাতৃভাষা ও রাষ্ট্রীয় ভাষা ছিল, আছে আর সবসময়ে থাকবে। জন গণ মন।’
তবে বিতর্ক কি এখানেই শেষ? না, কারণ অজয় দেবগণের টুইটের পাল্টা উত্তরও দিয়েছেন দক্ষিণী তারকা। সেখানে তিনি জানিয়েছেন যে গোটা বিষয়টি নিয়ে জলঘোলা হোক তা তিনি চান না। তবে অ্যাকশন হিরোর সাথে সম্মুখ সাক্ষাতে তিনি বিস্তারিত জানাবেন।

সুদীপ তাঁর দ্বিতীয় টুইটে লেখেন, “আমাদের দেশের প্রত্যেকটা ভাষা আমি ভালবাসি ও তাদের শ্রদ্ধা করি স্যর। আমি চাই এই বিষয়টা এখানেই থেমে যাক… কারণ আমি ওই কথাটা একটা সম্পূর্ণ অন্য প্রসঙ্গে বলেছিলাম। অনেক ভালবাসা ও শুভেচ্ছা আপনার জন্য। শীঘ্রই আপনার সঙ্গে দেখা হওয়ার অপেক্ষায় রইলাম।”

আজই নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ মহারাজের, কারণ কী?

আরও একটি ট্যুইটে তিনি আরও লেখেন, ‘এবং স্যর, আপনার হিন্দিতে পাঠানো ওই বার্তাটা আমি বুঝেছি। তার কারণ আমরা সকলে হিন্দি ভাষার সম্মান করি, ভালবেসেছি ও পড়েছি। অপরাধ নেবেন না স্যর, কিন্তু ভাবছিলাম যে আমার উত্তরটা যদি আমি কন্নড় (Kannad) ভাষায় টাইপ করতাম তাহলে পরিস্থিতিটা কেমন হত!! আমরাও কি ভারতেরই অংশ নই, স্যর।” ব্যাস ”ভুল বোঝাবুঝি’র এখানেই সমাপ্তি। কিন্তু শেষ হয়েও হল কি শেষ?

কিচ্চা সুদীপের একাধিক উত্তরের পর অজয় লেখেন, ‘হাই কিচ্চা সুদীপ, তুমি আমার বন্ধু। এই ভুল বোঝাবুঝিটা মিটিয়ে নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। আমি সবসময়েই পুরো ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিটাকে এক হিসেবে বিবেচনা করেছি। আমরা সকল ভাষার সম্মান করি এবং আশা করি সকলেই আমাদের ভাষারও সম্মান করবেন। হয়তো, অনুবাদে কিছু খামতি ছিল।’

এই ‘ট্যুইটার যুদ্ধ’ আপাতত মিটলেও, বেশ চর্চা তৈরি হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকে আবার দক্ষিণের ছবির সাফল্যে কোণঠাসা বলিউড, এই বিষয়টি এড়িয়ে যাচ্ছেন না। তাহলে কি বলিউড বনাম টলিউডের লড়াইটা নিঃশব্দে হলেও এখনও চলছে?

Previous articleজ্বালানি তেলে ৬৮% শুল্ক কেন্দ্র নেয়, আর দোষ রাজ্যের: মমতার সুরে সরব রাহুল