মরশুমের প্রথম কালবৈশাখীতে বলি ৫, ব্যাহত একাধিক লাইনের ট্রেন চলাচল

প্রখর দাবদাহ থেকে স্বস্তি পেল রাজ্যবাসী। শনিবার মরশুমের প্রথম কালবৈশাখী ও ঝড়বৃষ্টিতে ভিজল কলকাতা -সহ গোটা রাজ্য। শনিবার সন্ধ্যের ঝড় এবং তারপর তুমুল বৃষ্টিতে তাপমাত্রা অনেকটাই কমে যায়। ফলে স্বস্তিতে রাজ্যবাসী। কিন্তু ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়ে যায় একাধিক এলাকা। শনিবার বিকেলের বৃষ্টিতে মোট মৃত্যু হয়েছে ৫ জন। ব্যাহত হয়েছে একাধিক এলাকার রেল চলাচল।


আরও পড়ুন:রামকৃষ্ণ মিশনের ১২৫ বছর পূর্তিতে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট মমতার


কালবৈশাখীর তাণ্ডবে এখনও পর্যন্ত রাজ্যের মোট ৫ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এরমধ্যে পুরুলিয়ায় ঝড়বৃষ্টিতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে, খড়গপুরেও বৃষ্টি চলাকালীন লোহার তোরণ ভেঙে পড়ে এক বাইক আরোহী প্রাণ হারিয়েছেন বলে খবর।   পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামে বাজ পড়ে মা ও ছেলের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বাঁকুড়ার সোনামুখী, পুরুলিয়া এবং খড়গপুরেও এক জন করে প্রাণ হারিয়েছেন।  খড়গপুরের বিএসএনএলের টাওয়ার ভেঙে পড়ে ফলে গোটা এলাকায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়। এখনও সেখানে কাজ চলছে।

এছাড়াও কালবৈশাখী ও ঝড়ের উপদ্রবে শিয়ালদহের দক্ষিণ শাখার একাধিক শাখায় রেল চলাচল ব্যাহত হয়। যাদবপুর-ঢাকুরিয়ার মাঝে গাছ ভেঙে পড়ে বন্ধ থাকে ট্রেন চলাচল। এছাড়া আরামবাগের কাছে ট্রেনের প্যান্টোগ্রাফ ভেঙে পড়ায় বিপত্তি। জানা গিয়েছে, সন্ধে সাড়ে ৬টা নাগাদ তারকেশ্বর-আরামবাগ লাইনে মায়াপুরের কাছে ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। হাওড়া-বর্ধমান লাইনে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়ে পড়ে । হাওড়া থেকে শিপ্রা এক্সপ্রেস ছাড়ার পর তিনবার দাঁড়িয়ে পড়ে।

শুধু তাই নয় আবহাওয়া খারাপ থাকায় কলকাতা বিমানবন্দরে বিমান চলাচলও ব্যাহত হয়। দীর্ঘ সময় পেক্ষার পর বিমান অবতরণ করে।

Previous articleরামকৃষ্ণ মিশনের ১২৫ বছর পূর্তিতে শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট মমতার