নতুন সম্পর্কে প্রেমিকা সেই ক্ষোভেই  শ্বাসরোধ করে খুন, গড়ফা কান্ডে নয়া মোড়

গড়ফা খুনের ঘটনায়  (Garfa Murder Case) উঠে এলো আরো চাঞ্চল্যকর তথ্য। গোপনে নতুন সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছিলেন প্রেমিকা সুস্মিতা দাস( Sushmita Das)। সেই ক্ষোভেই প্রেমিকাকে খুন করে প্রেমিক। গ্রেফতার অভিযুক্ত  পুলিশি জেরায়  দোষ স্বীকার করেছে অভিযুক্ত প্রেমিক পঙ্কজ।

গড়ফার সুস্মিতা দাসের সঙ্গে প্রায় ১২ বছরের সম্পর্ক অভিযুক্ত পঙ্কজ দাসের। দুই বাড়ির সম্মতিও ছিল তাঁদের এই সম্পর্কে। পঙ্কজ কলকাতার বাসিন্দা হলেও কর্মসূত্রে আন্দামানে থাকতো। মাঝে মধ্যে আসতো সে।  হঠাৎ পঙ্কজের সন্দেহ হয়, নতুন সম্পর্কে জড়িয়েছে সুস্মিতা ।  তাঁর কাছে সরাসরি জানতে চাইলে  প্রেমিকা বিষয়টিকে প্রাথমিকভাবে অস্বীকার করেন।

আরও পড়ুন:“চরিত্রহীন-লম্পট”, ফের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র নিয়ে বিস্ফোরক স্ত্রী সুজাতা

গত ২৯ তারিখ আন্দামান থেকে বাড়ি ফেরে পঙ্কজ। এসেই সুস্মিতার বাড়ি যায় এবং বিষয়টা  তাঁর পরিবারকে জানায়। কিন্তু সেই অভিযোগে গুরুত্ব দেননি সুস্মিতার পরিবার।এরপর  আইনি বিবাহ সেরে ফেলতে চায় পঙ্কজ। তাতে রাজি ছিল সুস্মিতার পরিবার। এরপর রবিবার আবার প্রেমিকার বাড়িতে যায় পঙ্কজ। সেই সময় বাড়িতে একাই ছিল সুস্মিতা। দীর্ঘক্ষণ একসঙ্গে সময় কাটায় দুজনে। সেই সময় আবার নতুন সম্পর্ক নিয়ে  সুস্মিতাকে প্রশ্ন করলে তরুণী স্বীকার করে যে এক যুবকের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিল সে। এরপরই শ্বাসরোধ করে প্রেমিকাকে খুন করে বাড়ি চলে যায় পঙ্কজ।

জানা গিয়েছে, মৃতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অভিযুক্ত পঙ্কজকে। শুধু এই কারণেই খুন নাকি নেপথ্য আরো কোনও  রহস্য লুকিয়ে রয়েছে সেই বিষয় খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জেরার মুখে চাপের কাছে নতি স্বীকার করেছে অভিযুক্ত। দোষ স্বীকার করেছে সে।




Previous articleপাঁচ ধর্ষণকাণ্ডে রাজ্য পুলিশেই আস্থা হাইকোর্টের