দলের চিন্তন বৈঠকের মাঝেই কংগ্রেস ত্যাগ বর্ষীয়ান নেতা সুনীলের

আগামী লোকসভা নির্বাচনকে নজরে রেখে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে রাজস্থানে(Rajsthan) বসেছে কংগ্রেসের(Congress) চিন্তন শিবির। আর সেই বৈঠকের মাঝেই দল ছাড়লেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা তথা পাঞ্জাবের প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সুনীল জাখর(Sunil Jakhar)। শনিবার ফেসবুকে নিজের দলত্যাগের কথা ঘোষণা করেন তিনি। যদিও দল বিরোধী কাজের জন্য আগেই তাঁকে নোটিশ পাঠিয়েছিল দল।

নির্বাচনের আগে পাঞ্জাবের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পদ থেকে এই সুনীলকে সরিয়েই নভজ্যোত সিং সিধুকে সভাপতি করা হয়েছিল। এরপর থেকেই বিক্ষুব্ধ ছিলেন সুনীল। বারে বারে দলের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন তিনি। নির্বাচনের আগে কংগ্রেস নেত্রী অম্বিকা সোনি মন্তব্য করেছিলেন, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হিন্দু হলে এর বিরুপ প্রভাব পড়বে। তাঁর এই মন্তব্যের বিরোধিতা করে সুনীল বলেছিলেন, অম্বিকা দিল্লিতে বসে পাঞ্জাবে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করছেন। ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা, অম্বিকার ওই মন্তব্যে ‘হিন্দু’ সুনীলের ‘মুখ্যমন্ত্রীর মুখ’ হওয়ার সম্ভাবনাতেই যতিচিহ্ন পড়ে যায়। এরপর চান্নিকে সোনিয়া গান্ধী মুখ্যমন্ত্রী মুখ হিসেবে বেছে নেওয়ার পর ফের সরব হন সুনীল। তিনি বলেন, কংগ্রেস যেন পাঞ্জাবে বিএসপিকে প্রতিনিধিত্ব করছে। তিনি সোনিয়াকে আবেগপ্রবণ পরামর্শ দিয়েছিলেন, দল যেন তার আদর্শ থেকে সরে না আসে। এভাবে একের পর এক দলবিরোধী মন্তব্যের অভিযোগে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল ওই নেতাকে। অনুমান করা হচ্ছিল তাঁর শিয়রে ঝুলছে শাস্তির খাড়া। এহেন পরিস্থিতির মাঝেই দলের চিন্তন বৈঠক চলাকালিন দল ছাড়লেন সুনীল। পাশাপাশি ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘Good luck and Goodbye”। সংগঠনকে মজবুত করতে একদিকে যখন চিন্তন বৈঠক চলছে কংগ্রেসে ঠিক সেই সময়ে সুনীলের দলত্যাগে বেশ অস্বস্তিতে হাত শিবির।




Previous articleপ্রেমে প্রত্যাখান!  ‘প্রাক্তন প্রেমিকার’ বাড়ির সামনে বোমাবাজি, আহত ৪