Tamil Nadu: প্রায় তিন যুগ ধরে মহিলা হয়েও পুরুষ মুথুমাষ্টার

সন্তান মানুষ করতে সিঙ্গেল মাদার সাজলেন ছেলে। পরনে লুঙ্গি আর শার্ট, পেচিয়াম্মাল অচিরেই হয়ে উঠলেন মুথু। এভাবে লড়াই চলছে ৩৫ বছর ধরে।

তাঁর নাম মুথুমাষ্টার(Muthu master) , তিনি তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) বাসিন্দা। প্রায় তিন দশক আগে থুতুকুড়ির কাতু নায়াককানপাত্তি গ্রামে বিয়ে করে আসেন বছর কুড়ির পেচিয়াম্মাল(Pechiyammal) নামের এক তরুণী। নতুন জীবন গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়ে সংসার করার সেই শুরু। কিন্তু সুখ বোধ হয় সবার কপালে সয় না। বিয়ের এক পক্ষকাল কাটতে না কাটতেই হার্ট অ্যাটাকে(Heart attack) মারা গেলেন তার স্বামী। মৃত্যু শোক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই বুঝতে পারলেন শারীরিক পরিবর্তনের কথা।পেচিয়াম্মাল তখন তাঁর স্বামীর একমাত্র স্মৃতিকে গর্ভে ধারণ করে ফেলেছেন। সময়মতোই জন্ম নিল ফুটফুটে একটা কন্যা সন্তান। এবার আসল লড়াই শুরু।

তামিলনাড়ুর এই মহিলা আজ খবরের শিরোনামে। কিন্তু তার জীবনটা বড়ই কষ্টের। অল্প বয়সী বিধবাকে কুপ্রস্তাব ,হেনস্থা সবটা সহ্য করতে হয়েছে একা। মহিলা বলে যখন একের পর এক জন্য খারাপ প্রস্তাব তাঁর দিকে ধেয়ে আসছিল, তখনই তিনি নেন এক সাহসী সিদ্ধান্ত। চুল কেটে, পোশাক বদলে নারী হয়ে উঠল পুরুষ। সন্তান মানুষ করতে সিঙ্গেল মাদার সাজলেন ছেলে। পরনে লুঙ্গি আর শার্ট, পেচিয়াম্মাল অচিরেই হয়ে উঠলেন মুথু। এভাবে লড়াই চলছে ৩৫ বছর ধরে। হোটেল থেকে শুরু করে চায়ের দোকান কাজ করেছেন সর্বত্র।পেচিয়াম্মালের কথায়,  কখনও রংয়ের মিস্ত্রি আবার কখনও ১০০ দিনের কাজে পুরুষের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে গেছেন। তিল তিল করে পরিশ্রম করে অর্থ সঞ্চয় করেছেন যাতে নিজের কন্যা সন্তানকে একটু ভালো ভবিষ্যৎ দিতে পারেন।

আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, ব্যাংক একাউন্ট সবেতেই তিনি এখন মুথু। সমাজের কুপ্রস্তাবের হাত থেকে বাঁচতে নারী হল পুরুষ, নিল সেই ছদ্মবেশ। কিন্তু তা বহন করা সহজ ছিল না । যেহেতু তিনি মেয়ে, তাই মহিলা সংক্রান্ত শারীরিক সমস্যা সামলেছেন পুরুষের পোশাক পরেই। তবে তাঁর লড়াই সার্থক, কারণ নিজের মেয়েকে ভালো ঘরে বিয়ে দিতে পেরে খুশি তিনি।

এখন বয়স ৫৫, গর্বিত মা বলছেন পুরুষের ছদ্দবেশ নিয়েছিলেন বলেই রাত পর্যন্ত কাজ করতে পেরেছেন, মেয়ের বিয়ে দেয়ার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে ।এখন আশা যদি সরকারি পেনশন পাওয়া যায় তাহলে বাকি জীবনটাও ছেলে হিসেবে কাটিয়ে দিতে তাঁর কোনো আক্ষেপ নেই। যাঁর জন্য এত কিছু সেই মেয়ে, মায়ের মধ্যেই পেয়েছেন বাবা-মা দু’জনকেই। মা বাকি জীবনটা ভালো কাটুক এটাই তাঁর একমাত্র প্রার্থনা।



Previous articleডাকাতের খপ্পরে মূল্যবান দ্রব্য খোয়া গেল জনপ্রিয় গায়িকার স্বামীর