বালির তৃণমূল নেতা তপন দত্ত খুনে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের

বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার বেঞ্চ জানিয়েছেন, ওই খুনের ঘটনার তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সব দায়িত্ব সিবিআই পালন করবে

বেনজির রায় কলকাতা হাইকোর্টের। হাওড়ার তৃণমূল নেতা তপন দত্ত খুনের ঘটনায় ১১ বছর পর সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট। বালির জলা জমি ভরাট নিয়ে বিবাদের ঘটনায় খুন হয়েছিলেন তপন দত্ত।কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার ডিভিশন বেঞ্চ এই নির্দেশ দিয়েছেন। বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার বেঞ্চ জানিয়েছেন, ওই খুনের ঘটনার তদন্ত ও বিচার প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সব দায়িত্ব সিবিআই পালন করবে।

প্রসঙ্গত, বালির নিশ্চিন্দা এলাকায় একটি বিশাল জলাভূমি ছিল। সেই জলাভূমি দখল করতে সচেষ্ট ছিল স্থানীয় প্রোমোটারি চক্র। ২০১১ সালে তৃণমূল তখন ক্ষমতায়।সেই সময় ওই জলা জমি ভরাট নিয়ে দলের ভিতরেই আপত্তি তুলে কাজে বাধা দিয়েছিলেন তপন দত্ত।ওই বছর ৬ মে ঘটনার দিন রাতে বাড়ি ফিরছিলেন তপন দত্ত। সেখানে রেলগেটের কাছে তাঁকে কুপিয়ে খুন করা হয় বলে অভিযোগ। তার পর থেকেই এই ঘটনার প্রকৃত তদন্ত ও সিবিআইয়ের দাবিতে দীর্ঘ ১১ বছর লড়াই চালিয়ে এসেছেন তার স্ত্রী প্রতিমা দত্ত। বৃহস্পতিবার আদালত চত্বরে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়ায় পরই তিনি জানান, এবার আশা করি দোষীরা শাস্তি পাবে।

আরও পড়ুন- দলের নেতাদের নিয়ে বেলুড় মঠ ঘুরে দেখলেন জেপি নাড্ডা

এই ঘটনায় ১৩ জনের নাম জড়িয়েছিল । এই মামলা নিম্ন আদালত, কলকাতা হাই কোর্ট এমনকি, সুপ্রিম কোর্টেও উঠেছে। কিন্তু এখনও সুবিচার পাননি নিহত তপন দত্তের স্ত্রী প্রতিমা দত্ত। এক দশক অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও এই ঘটনায় অভিযুক্তরা শাস্তি পায়নি। রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্তে সিআইডি তদন্তভার নিয়েছিল। সিআইডি তদন্তের পর জানিয়েছিল, জলাজমি ভরাটের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিলেন বলেই তপনবাবুকে খুন হতে হয়েছে। ২০১১ সালের ৩০ অগস্ট সিআইডি মামলার চার্জশিট পেশ করে।

 


 

 

 

Previous articleপ্রমাণ ছাড়াই ফকিরদের ‘আতঙ্কবাদী’ আখ্যা! জয় শ্রী রাম বলতে বাধ্য করা হল যোগীরাজ্যে