নার্সের চাকরি পাওয়ায় কব্জি কাটার ঘটনায় রেণুর স্বামীর দুই সঙ্গী গ্রেফতার

স্ত্রীর হাতের কব্জি কাটায় দুই সঙ্গীকে ব্যবহার করেছিল রেণু খাতুনের স্বামী শের মহম্মদ। বৃহস্পতিবার তাদের গ্রেফতার গ্রেফতার করল কেতুগ্রাম থানার পুলিশ। ধৃতদের নাম আশরাফ আলি শেখ ও হাবিব শেখ। তাদের বাড়ি মুর্শিদাবাদে। পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতরা কেরল পালানোর পরিকল্পনা করছিল। কিন্তু তার আগেই আজ ভোররাতে তাঁদের দুজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।




আরও পড়ুন:ভবানীপুরে জোড়া খুনকাণ্ড: সুপারি কিলার সহ গ্রেফতার ৩



প্রথম থেকেই পুলিশকে রেণু জানিয়েছিলেন হাত কাটার সময় তাঁর স্বামীর সঙ্গে আরও দু’জন ছিল। তারাও স্বামীরই বন্ধু। নাম না জানলেও, মুখ দেখলে চিনতে পারবেন বলেই জানিয়েছিলেন তিনি। রেণুর স্বামীর বয়ান অনুযায়ী পুলিশ আশারফ আলি শেখ ও হাবিব শেখকে গ্রেপ্তার করে। জানা গিয়েছে, মাসতুতো ভাইয়ের মাধ্যমে ওই দুই যুবকের সঙ্গে আলাপ হয় রেণুর স্বামীর। স্ত্রীর সঙ্গে অশান্তির কথা নতুন বন্ধুদের জানায় সে। নার্সের চাকরিতে যোগ দিলে স্ত্রী হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে বলেই তাঁর স্বামীকে জানায় ওই দুই যুবক।  এরপরই তিনজন মিলে রেণুর হাত কেটে নেয়।





ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল তিনজন। তদন্তে নেমে কেতুগ্রাম থানার পুলিস মঙ্গলবার সকালে রেণুর শ্বশুর-শাশুড়িকে গ্রেফতার করে। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা নাগাদ পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রাম সালার সীমান্ত এলাকার হলদি গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয় শের মহম্মদকে। এরপর তার দুই সঙ্গীকে আজ গ্রেফতার করা হল।

Previous articleবালির তৃণমূল নেতা তপন দত্ত খুনে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ কলকাতা হাইকোর্টের